৩৮ পেরিয়ে ৩৯-এ সিএমপি, কাটেনি জনবল সংকট

14
1445960062
.

চট্টগ্রাম মহানগরীর আইন শৃংখলা রক্ষায় নিয়োজিত চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের (সিএমপি) ৩৮ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত হল বুধবার। আজ ১ ডিসেম্বর ৩৯ বছরে পা রাখছে পুলিশ বাহিনীর এ সংস্থা। চট্টগ্রাম মহানগরীর আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ১৯৭৮ সালের ৩০ নভেম্বর প্রতিষ্ঠা করা হয় সিএমপি। চট্টগ্রামের ৬০ লক্ষাধিক নগরবাসীর নিরাপত্তায় সিএমপিতে নিয়োজিত রয়েছেন সাড়ে ৫ হাজার পুলিশ সদস্য।

সংশ্লিষ্টদের মতে, সাফল্য-ব্যর্থতার দীর্ঘ এ পথ পরিক্রমায় নগরবাসীর নিরাপত্তার দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে তাদেরকে নানা প্রতিকূল পরিস্থিতির মুখোমুখি হতে হয়েছে। নানা সীমাবদ্ধতা সত্ত্বেও নগরীর আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে গুরুদায়িত্ব পালন করে যাচ্ছে সিএমপি।

ctg-cmp-gate
.

সংশ্লিষ্ট সুত্রে জানা গেছে, ১৯৭৮ সালের ১০ লক্ষাধিক নগরবাসীর নিরাপত্তার দায়িত্ব নিয়ে ৬টি থানা ও দুটি জোনে ভাগ হয়ে যাত্রা শুরু করে সিএমপি। তখন সব মিলিয়ে জনবল ছিল তিন হাজার ৬০০ জন। আর বর্তমানে নগরীর জনসংখ্যা ৬০ লক্ষাধিক। ২০০০ সালে নতুন আরও ৬টি থানা কার্যক্রম শুরু করলে থানার সংখ্যা দাঁড়ায় ১২ টিতে। বর্তমানে সিএমপিতে কর্মরত রয়েছে প্রায় সাড়ে ৫ হাজার পুলিশ সদস্য।

সিএমপি সূত্র জানিয়েছে, সাড়ে ৫ হাজার জনবল থাকলেও তারা সবাই সরাসরি আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে জড়িত নন ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা, ৪৬টি অতিগুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা পাহারা, মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রীসহ রাষ্ট্রীয় গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের (ভিভিআইপি) প্রটোকল ও প্রটেকশন, চারটি স্ট্যান্ডবাই টিম, পুলিশ কন্ট্রোল রুম, রিজার্ভ অফিস, দামপাড়া পুলিশ লাইন, বোমা ইউনিটসহ বিভিন্ন দায়িত্বে নিয়োজিত থাকে প্রায় দুই হাজার পুলিশ সদস্য।

এছাড়া ছুটি, প্রশিক্ষণ ও ব্যক্তিগত সমস্যায় প্রায় ১০ থেকে ১৫ শতাংশ পুলিশ সদস্য কর্মক্ষেত্রে অনুপস্থিত থাকেন। জনবল সংকটসহ নানা সংকটের জন্য আরও ৪টি নতুন থানা, পৃথক পুলিশ লাইন, যানবাহনসহ বিভিন্ন সুবিধা নিশ্চিত করার প্রক্রিয়া দীর্ঘদিন ধরে চললেও এখনও তা আলোর মুখ দেখে নি।

cmp-building
.

এ প্রসঙ্গে সিএমপি কমিশনার মো.ইকবাল বাহার বলেন, সিএমপি একটি ঐতিহ্যবাহী সংগঠন। নানা সীমাবদ্ধতা ও সমালোচনা সত্ত্বেও সিএমপি নগরবাসীর নিরাপত্তার দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছে। এটা ঠিক, নগরীর আইনশৃঙ্খলা রায় আমরা পুরোপুরি সফল না হলেও আমাদের প্রতি নগরবাসীর আস্থা অটুট রয়েছে।

সিএমপি’র সমস্যা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, জনবল সংকট আমাদের প্রধান সমস্যা। এর পাশাপাশি যানবাহন ও স্থায়ী অবকাঠামোর সমস্যা তো আছেই। নগরীর আয়তন ও জনসংখ্যার তুলনায় সিএমপির জনবল অনেক কম। এছাড়া সিএমপির অনেক থানা-ফাঁড়ির স্থায়ী কোন অবকাঠামো না থাকায় নগরবাসীকে সেবা দিতে পুলিশকে হিমশিম খেতে হচ্ছে।

15220054_1848140788765161_6189598249814242770_n
.

এদিকে সিএমপির প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন উপলক্ষে নগরীতে পালিত হচ্ছে দুইদিন ব্যাপী জমজমাট উৎসব। ব্যানার পেষ্টুন, বিলবোর্ড আর আলোক সজ্জায় সাজানো হয়েছে পুরো বন্দর নগরী জুড়ে।

বুধবার সকাল থেকে মধ্যরাত পর্যন্ত নগরীর দামপাড়া পুলিশ লাইনে নাগরিক সংবর্ধনা, কেক কাটা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, মিলন মেলা, মত বিনিময় অনুষ্ঠিত হয়। এসব অনুষ্ঠানে পুলিশের আইজিপি শহীদুল হকসহ উর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তা, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দসহ সর্বস্তরের মানুষ অংশগ্রহণ করেন।

এখনো কোন মন্তব্য করা হয়নি