মালয়েশিয়া পাচারকালে টেকনাফ থেকে নারী শিশুসহ ২২ রোহিঙ্গা উদ্ধার

0
.

কক্সবাজারের টেকনাফে সাগরপথে ফের মালয়েশিয়া যাবারকালে শিশুসহ ২২ রোহিঙ্গাকে উদ্ধার করেছে বিজিবি। রবিবার (১০ ফেব্রুয়ারি) দিবাগত মধ্যরাতে শাহপরীরদ্বীপ খুরেরমুখ এলাকা থেকে তাদের উদ্ধার করা হয়। তবে এ সময় দালাল চক্রের কোন সদস্যকে আটক করা সম্ভব হয়নি।

উদ্ধার হওয়া রোহিঙ্গাদের মাঝে ১০ নারী, ১১ শিশু এবং ১ পুরুষ রয়েছে। তারা সবাই কুতুপালং এবং বালুখালী রোহিঙ্গা ক্যাম্পের বাসিন্দা।

টেকনাফ-২ বিজিবির অধিনায়ক আছাদুজ্জমান চৌধুরী তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেছেন, টেকনাফ শাহপরীর দ্বীপ খুরেরমুখ নামক স্থানে মালয়েশিয়া পাচারের জন্য উত্তর লম্বরি পাহাড়ে কিছু রোহিঙ্গাকে জড়ো করা হয়েছে এমন তথ্য পেয়ে সেখানে অভিযান চালানো হয়। খুরের মুখে বিজিবির অস্থায়ী চেকপোষ্টের হাবিলদার মো. তাজুল ইসলামের নেতৃত্বে একটি টহল দল এসব রোহিঙ্গাদের উদ্ধার। জিজ্ঞাসবাদে রোহিঙ্গারা জানিয়েছে তারা মালয়েশিয়া যাবার জন্য ট্রলারের অপেক্ষা করছিল। নিজেদের সুবিধার জন্য তারা অনিরাপদ জেনেও সাগরপথে মালয়েশিয়া যেতে দালালের সহযোগিতা নিচ্ছে। তবে কোন দালালের মাধ্যমে তারা যেতে এখানে এসেছে তা কোন মতেই স্বীকার করেনি।

উদ্ধার হওয়া ৩ নারী, ৪ জন শিশু এবং একজন পুরুষসহ ৮ জন বালুখালী ক্যাম্পের। বাকি ৬ নারী এবং ৮ জন শিশুসহ ১৪ জন কুতুপালং ক্যাম্পের আশ্রিত রোহিঙ্গা।

পরে সংশ্লিষ্টদের মাধ্যমে তাদের ক্যাম্পে ফেরত পাঠানো হবে বলে জানিয়েছেন বিজিবির এ অধিনায়ক।

উল্লেখ্য, গত কয়েকদিন আগেও মালয়েশিয়া পাচারকালে টেকনাফের পৃথক তিনস্থান হতে ২ দালালসহ ৫০ রোহিঙ্গা নারী-পুরুষ ও শিশুকে উদ্ধার করেছিল বিজিবি। তারাও টেকনাফ, উখিয়ার বিভিন্ন ক্যাম্পের আশ্রিত রোহিঙ্গা।

কোন মন্তব্য নেই

একটি মন্তব্য দিন