২৯ মার্চ থেকে বাংলাদেশ-কলকাতা জাহাজ চলাচল শুরু

1
ব্রেকিং নিউজ
  •                                                                                                                                    
.

আগামী ২৯ মার্চ বাংলাদেশ থেকে ভারতে যাওয়া যাবে জাহাজে করে।  ওইদিন নারায়ণগঞ্জ থেকে কলকাতার উদ্দেশে ছেড়ে যাবে এমভি মধুমতি নামে যাত্রীবাহী জাহাজটি।

বিআইডব্লিউটিসির পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বাংলাদেশের ভ্রমণপিপাসু সম্মানিত জনসাধারণকে জানানো যাচ্ছে যে, বাংলাদেশ-ভারত নৌপ্রটোকল চুক্তির আওতায় বাংলাদেশ-ভারত ভ্রমণে ইচ্ছুক পর্যটকদের যাতায়াতের সুবিধার্থে বিআইডব্লিউটিসির নিজস্ব অত্যাধুনিক নৌযান দ্বারা সরকারি নির্দেশনার পরিপ্রেক্ষিতে পরীক্ষামূলকভাবে ঢাকা-কলকাতা যাত্রীবাহী সার্ভিস চালু করতে যাচ্ছে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়, আগামী ২৯ মার্চ থেকে বিআইডব্লিউটিসির এমভি মধুমতি জাহাজটি নারায়ণগঞ্জের পাগলা মেরিএন্ডার থেকে বরিশাল-মোংলা-সুন্দরবন-আন্টিহারা-হলদিয়া রুট হয়ে কলকাতার উদ্দেশে যাত্রা করবে।

বিজ্ঞপ্তিতে যাত্রী ভাড়ার তালিকা দেওয়া হয়। ঢাকা-কলকাতা কেবিন ভাড়া ফ্যামিলি স্যুট (দুজন) ১৫ হাজার টাকা, প্রথম শ্রেণি (যাত্রীপ্রতি) ৫ হাজার, ডিলাক্স শ্রেণি (দুজন) ১০ হাজার টাকা, ইকোনমি চেয়ার (যাত্রীপ্রতি) ৮ হাজার টাকা এবং সুলভ শ্রেণি/ডেক (যাত্রীপ্রতি) ১৫০০ টাকা।

আন্তঃদেশীয় প্রটোকল রুট (ইনল্যান্ড প্রটোকল রুট) ও উপকূলীয় জাহাজ চলাচলের রুটের আওতায় এই পরিবহন চলবে। জাহাজ ও নৌযান কলকাতা থেকে হলদিয়া, বরিশাল ও ঢাকা হয়ে গৌহাটি পর্যন্ত চলবে। টেকনিক্যাল ভাষায় এটি ১ ও ২ এবং ৩ ও ৪ প্রটোকল রুট। প্রতিবেশী দুই দেশের তিনটি নদী-ভারতের গঙ্গা এবং বাংলাদেশের যমুনা ও ব্রহ্মপুত্রকে এই নৌপথে সংযুক্ত করা হবে।

ঢাকা-কলকাতা যাত্রীবাহী জাহাজ পরিবহনের বিষয়ে সম্মত হয় ভারত ও বাংলাদেশ। এ চুক্তিতে সই করেন বাংলাদেশের নৌপরিবহন সচিব আবদুস সামাদ ও ভারতের জাহাজ মন্ত্রণালয়ের সচিব গোপালকৃষ্ণ।

প্রথম মন্তব্য