চরফ্যাশনে তরুণীকে আটকে রেখে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, আটক ৫

0

ভোলার চরফ্যাশনে ২২ বছরের এক তরুণীকে আটকে রেখে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় কোস্টগার্ডের একটি টিম মেয়েটিকে উদ্ধার করে অভিযুক্ত পাঁচজনকে আটক করেছে।

আজ রবিবার সকালে আটক ব্যক্তিদেরকে ভোলার দক্ষিণ আইচা থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

তারা হলেন- উপজেলার দক্ষিণ আইচা ৬নং ওয়ার্ডের খলিল মিয়ার ছেলে ইউছুফ হাসান সরদার (২০), দক্ষিণ আইচা ৫নং ওয়ার্ডের হাকিম দালালের ছেলে সোহেল রানা দিদার (২০), চর মানিকা ৩নং ওয়ার্ডের মোকাম্মেল সিকদারের ছেলে ওয়াসেল আহম্মদ সিকদার (২০), চরকচ্ছপিয়া ৪নং ওয়ার্ডের ইসমাঈল ফকিরের ছেলে রিপন ফকির (২০), একই গ্রামের আবুল কাশেম হাওলাদারের ছেলে মোরশেদ হাওলাদার (৩৫)।

চরফ্যাশন দক্ষিণ আইচা থানার পুলিশ পরির্দশক (তদন্ত) মিলন কুমার ঘোষ জানান, চরফ্যাশনের এক তরুণীর সাথে দক্ষিণ আইচা সোহেল রানা দিদারের সাথে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে প্রেমের সর্ম্পক হয়। এর সূত্রে তরুণীর মায়ের চিকিৎসার জন্য প্রেমিক সোহেলের কাছে ৫ হাজার টাকা ধার চায়। ওই টাকা আনতে শনিবার বিকালে তরুণী দক্ষিণ আইচা গেলে তাকে সোহেল ও তিন যুবক একটি স্প্রিডবোট যোগে পর্যটন এলাকা কুকরী মুকরীর নারিকেল বাগানে নিয়ে মেয়েটিকে ধর্ষণ করে।

এরপর ওই তরুণীকে আরও ২ যুবকসহ মোট পাঁচ মিলে বুড়াগৌরাঙ্গ নদীতে একটি ট্রলারে ভোর ৪টা পর্যন্ত আটকে রেখে আবারও ধর্ষণ করে। পরে তরুণী চিৎকারে টহলরত কোস্টগার্ডের একটি টিম তাকে উদ্ধার করে এবং অভিযুক্ত পাঁচ জনকে আটক করে।

এ ঘটনায় ওই তরুণী বাদী হয়ে পাঁচজনকে আসামি করে দক্ষিণ আইচা থানায় একটি মামলা করেন বলে জানান এই পুলিশ কর্মকর্তা।

প্রসঙ্গত, প্রায় এক মাস আগে ঢাকা থেকে স্বামীকে খুঁজতে গিয়ে চরফ্যাশনে এক গৃহবধূ ধর্ষণের শিকার হন।

কোন মন্তব্য নেই