চসিক নির্বাচন সরেজমিন মেয়র প্রার্থীর প্রচারণা

পুলিশ প্রহরায় গাড়িতে চড়ে রেজাউল, পায়ে হেঁটে অলি-গলি চষে বেড়ান ডা. শাহাদাত

0
.

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন-চসিক নির্বাচনে মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীরা ঘাম ঝড়ানো প্রচারণা চালাচ্ছেন। মেয়র পদে প্রধান দুই প্রার্থীর মধ্যে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী পুলিশ প্রহরায় গাড়ি চড়ে প্রচারণা চালাচ্ছেন, অন্যদিকে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী পায়ে হেঁটে দুয়ারে দুয়ারে গিয়ে ভোট চাইছেন।

আজ রবিবার (১৫ মার্চ) বিকেলে নগরীর আগ্রাবাদের বিভিন্ন এলাকায় প্রচারণা চালান আ.লীগের প্রার্থী রেজাউল করিম এবং রবিবার সকালে বাকলিয়া এলাকায় প্রচারণা চালান বিএনপির প্রার্থী ডা. শাহাদাত হোসেন। এই দুই প্রার্থী প্রচারণায় সরেজমিনে গিয়ে পর্যবেক্ষণে এমন চিত্র পাওয়া যায়। আওয়ামী লীগের প্রার্থীর প্রচারণায় নেতাকর্মীর উপস্থিতির চেয়ে বিএনপি প্রার্থীর প্রচারণায় নেতাকর্মীর উপস্থিতি ছিল বেশি। আ.লীগের প্রার্থী প্রচারণা চালান মূল সড়কে এবং বিএনপি প্রার্থী প্রচারণা চালান অলি-গলিতে।

পুলিশ প্রহরায় রেজাউল করীমের গণসংযোগ।

রবিবার (১৫ মার্চ) বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে নগরের উত্তর আগ্রবাদ ২৪ নম্বর ওয়ার্ডে গণসংযোগ শুরু করেন আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী রেজাউল করিম চৌধুরী। হালিশহরের তাসফিয়া কমিউনিটি সেন্টার থেকে মিছিল করে কিছুদূর যাওয়ার পর তিনি উঠে যান গাড়িতে। প্রচারণার টিমের অগ্রভাগে এবং শেষভাগে বিপুল পরিমাণ পুলিশ সদস্যের উপস্থিতি লক্ষ্য করা যায়। মূল সড়কে প্রচারণা চালানোর কারণে সড়ক ব্যাপক যানজটের সৃষ্টি হয়। গাড়িতে চড়েই নগরীর বড়পোল মোড়ে এসে গাড়িতে দাঁড়িয়েই সংক্ষিপ্ত পথসভায় বক্তব্য রাখেন তিনি। এসময় রেজাউল করিম বলেন, নৌকার বিজয় মানে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের বিজয়, নৌকার বিজয় মানে শেখ হাসিনার বিজয়, নৌকার বিজয় মানে স্বাধীনতা ও উন্নয়নের বিজয়। তাই মেয়র পদে নৌকা প্রতীকে ভোট দিন। তিনি বলেন, শিশু-কিশোরদের বিনোদনের সমস্যা, কর্মজীবী নারীদের গণপরিবহনের সমস্যা নিরসন করবো। চট্টগ্রামের মানুষের মাঝে হোল্ডিং ট্যাক্স একটি আতংক। সকলের সাথে সমন্বিতভাবে, পরিকল্পিতভাবে আলাপ-আলোচনা করে হোল্ডিং ট্যাক্স সাধারণ নাগরিকদের সহনীয় পর্যায়ে রাখা হবে। যে কোন কিছুর বিনিময়ে নগরীরর প্রতিটি এলাকা থেকে মাদকের আস্তানা আমরা উচ্ছেদ করবো। রেজাউল করিম চৌধুরীর সঙ্গে গণসংযোগে উপস্থিত ছিলেন দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান, মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আলতাফ হোসেন চৌধুরী বাচ্চু, সাংগঠনিক সম্পাদক নোমান আল মাহমুদ, কাউন্সিলর প্রার্থী নাজমুল হক ডিউকসহ আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

.

এদিকে সকালে নগরীর বাকলিয়ার বিভিন্ন এলাকায় গণসংযোগ করেন বিএনপির মেয়র প্রার্থী ডা. শাহাদাত হোসেন। বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী নিয়ে পায়ে হেঁটে বাকলিয়ার বিভিন্ন অলি-গলিতে প্রচারণা চালান তিনি। এসময় উপস্থিত ছিলেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান, চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সাবেক সভাপতি মীর মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন, নগর বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি আবু সুফিয়ান, সাধারণ সম্পাদক আবুল হাশেম বক্করসহ ছাত্রদল, যুবদল, স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতাকর্মীরা। প্রচারণাকালে আয়োজিত পথসভায় ডা. শাহাদাত মেয়র নির্বাচিত হলে চট্টগ্রামকে শিক্ষা ও গবেষণায় এগিয়ে নেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে বলেন, মেয়র নির্বাচিত হলে আধুনিক ও বাসযোগ্য নগর গড়ে তুলবো। শিক্ষায় অগ্রগতির পাশাপাশি গবেষণায়ও মনোযোগ দেবো। সবার সঙ্গে আলোচনা করে পরিকল্পিত নগরে পরিণত করবো। তিনি বলেন, নির্ভয়ে ভোটাররা কেন্দ্রে আসুন। আপনার ভোট আপনি দেবেন। ভোট দেওয়া নাগরিক অধিকার। গণতন্ত্রকে মুক্ত করতে আপনাকে রায় দিয়ে যোগ্য প্রার্থীকে নির্বাচিত করতে হবে।

কোন মন্তব্য নেই