বরিশালে দুই ফটোসাংবাদিককে পিটিয়ে আহত করলো পুলিশ

0
.

বরিশালে করোনা সংক্রমণ সংক্রান্ত সরকারি প্রচারণার ছবি তুলতে যেয়ে স্থানীয় পত্রিকার ২ ফটো সাংবাদিক আহত হওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনার বিচার দাবি করেছেন আহত সাংবাদিকরা। এ ঘটনার সাথে জড়িত পুলিশ সদস্যদের চিহ্নিত করে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দিয়েছেন পুলিশ কমিশনার।

শনিবার (২৮ মার্চ) রাতে পুলিশের পিটুনিতে আহত হওয়ার ঘটনা প্রকাশ করেন আহত দুই সাংবাদিক। যদিও শুক্রবার সন্ধ্যার দিকে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন শহীদ আব্দুর রব সেরনিয়াবাত ব্রিজের ঢালে ঘটে এ ঘটনা। আহত দুই ফটোসাংবাদিক হলেন বরিশালের আঞ্চলিক দৈনিক দেশ জনপদ পত্রিকার ফটোসাংবাদিক সাফিন আহমেদ রাতুল ও দৈনিক দখিনের মুখ পত্রিকার ফটো সাংবাদিক নাছির উদ্দিন।

রাতুল জানান, পুলিশের পিটুনিতে তারা হতভম্ব, লোক লজ্জায় প্রথমে বিষয়টি গোপন করেছিলেন। কিন্তু একপর্যায়ে বিষয়টি জানাজানি হওয়ায় শনিবার সন্ধ্যায় সহকর্মীদের কাছে বিষয়টি খুলে বলেন তারা।

রাতুল আরো জানান, করোনায় ঘর থেকে বের না হওয়ার বিষয়ক একটি প্রচারণা চালাতে যাবেন বরিশাল সদর উপজেলার ইউএনও মোঃ মোশারেফ হোসেন। এ খবরে আগেই প্রচারণার স্থলে হাজির হন ওই দুই ফটো সাংবাদিক।

শুক্রবার সন্ধ্যার দিকে ইউএনও পুলিশ সদস্যদের নিয়ে সেখানে প্রচারণা চালাতে যান, এসময় ইউএনওর সাথে থাকা পুলিশ সদস্যদের মধ্য থেকে দুইএকজন রাতুল ও নাছিরকে বেধরক মারধর করে। সাংবাদিক পরিচয় দেবার পরও তাদের লাঠি দিয়ে পেটানো হয়। তাদের সাথে ক্যামেরা থাকার পরও মারধর থেকে ক্ষ্যান্ত হয়নি পুলিশ। হামলাকারী পুলিশ সদস্য মাস্ক পরিহিতো ছিলো। পিটুনিতে এদের শরীরের বিভিন্ন স্খান ফুলে যায়।এ ঘটনায় বরিশাল প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক নিন্দা জানিয়ে ঘটনার সাথে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান।

এ ব্যাপারে ইউএনও মোঃ মোশারেফ হোসেনের সাথে যোগাযোগ করা হলেও তিনিও ঘটনাটি আহত ফটোসাংবাদিক রাতুলের কাছ থেকে শনিবার সন্ধ্যায় শোনার কথা জানান। তিনি আরো বলেন, ঘটনা শোনার জন্য আহতদেরকে স্ব-শরীরে তার কাছে যাওয়ার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে। বিষয়টি খোজ-খবর নিয়ে পরে এ ব্যাপারে জানানোর কথা বলেন তিনি।পাশাপাশি এ রকম ঘটনা ঘটে থাকলে দুঃখও প্রকাশ করেন তিনি।

এ ব্যাপারে জেলা প্রশাসক এস এম অজিয়র রহমান বলেন, সাংবাদিকদের নিরাপত্তা ও সম্মানের জন্য সম্ভব সব কিছু করা হবে। সরকারি কর্মকর্তার অবহেলা তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে, অন্যকেউ দায়ি হলে সে বিষয়েও যথাযথ ব্যবস্থা নেয়ার উদ্যোগ নেয়া হবে। অপরদিকে বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার মোঃ শাহাবুদ্দিন খানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, সংকটময় পরিস্থিতিতে সবার সাথে ভালো ব্যবহার করার নির্দেশনা রয়েছে পুলিশের প্রতি। এরপরও সাংবাদিকের সাথে অসদ আচরণ করে থাকলে, যারা এ ঘটনার সাথে জড়িত তাদের সনাক্ত করে শাস্তির আওতায় আনার আশ্বাস দেন তিনি। সুত্রঃ সময় নিউজ

কোন মন্তব্য নেই