অন্য এক পরিবেশে আজ পালিত হবে পবিত্র শবেবরাত

0
.

আজ পবিত্র শবেবরাত। হিজরি সালের শাবান মাসের ১৪ তারিখ রাতটি মুসলিম উম্মাহ সৌভাগ্যের রজনী হিসেবে পালন করে। এই মর্যাদাপূর্ণ রাতে মহান আল্লাহ তাআলা বান্দাদের জন্য তার অশেষ রহমতের দরজা খুলে দেন।

এই রাতে ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা পরম করুণাময়ের অনুগ্রহ লাভের আশায় বেশি বেশি নফল নামাজ, কোরআন তিলাওয়াত, জিকিরে মগ্ন থাকবেন। অনেকে রোজা রাখেন, দান-খয়রাত করেন। অতীতের গুনাহের জন্য ক্ষমাপ্রার্থনা এবং ভবিষ্যৎ জীবনের কল্যাণ কামনা করে মোনাজাত করবেন।

ধর্মপ্রাণ মানুষ সাধারণত এই রাতে মসজিদে গিয়ে নামাজ আদায়, মাজার ও প্রিয়জনের কবর জিয়ারত করেন। কিন্তু এবার করোনা ভাইরাসজনিত রোগ কভিড-১৯ সংক্রমণ এড়াতে ঘরে বসে ইবাদত করার নির্দেশনা দিয়েছে ইসলামিক ফাউন্ডেশন। এ ছাড়া শবেবরাতে কোনো ধরনের আতশবাজি ও মিছিল করার বিষয়ে সতর্কতা জারি করেছে পুলিশ সদর দপ্তর ও ঢাকা মহানগর পুলিশ।

পরিবেশ পরিস্থিতির কারণে এবারের সবেবরাত পালিত হবে অন্য রকম পরিবেশে।

পুলিশ সদর দপ্তরের এআইজি সোহেল রানা বলেন, ‘ইতিপূর্বে লক্ষ করা গেছে যে, পবিত্র শবেবরাতে জিয়ারতের জন্য কবরস্থান ও মাজারে অনেক লোকের সমাগম হয়। এ ছাড়া কবরস্থান, মাজারের ভেতরে ও বাইরে অনেক ভিক্ষুক, অসহায়, অসচ্ছল, প্রতিবন্ধী ও রোগাক্রান্ত ব্যক্তি সাহায্য পাওয়ার আশায় সমবেত হয়। এ ধরনের জনসমাগমের কারণে করোনাভাইরাস ব্যাপক হারে সংক্রমিত হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। তাই এ ধরনের কোনো জনসমাগম না করার জন্য বাংলাদেশ পুলিশের পক্ষ থেকে দেশবাসীর প্রতি অনুরোধ জানানো হয়েছে।’

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে পরিত্রাণ কামনা করে পবিত্র শবেবরাতের রাতে বিশেষ দোয়া করতে এবং কবরস্থান ও মাজারে জনসমাগম না করার আহ্বান জানিয়েছেন ইসলামিক ফাউন্ডেশনের (ইফা) মহাপরিচালক আনিস মাহমুদ।

বুধবার বিকেলে ইফার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘বিশ্বে করোনা ভাইরাস পরিস্থিতি ক্রমশ ভয়ংকর আকার ধারণ করছে। বাংলাদেশেও এর প্রভাব দৃশ্যমান। বিরাজমান এ পরিস্থিতিতে মহিমান্বিত এ রজনীতে নিজ নিজ বাসস্থানে অবস্থান করে ইবাদত-বন্দেগির সময় ব্যক্তিগত দোয়া ও প্রার্থনা ছাড়াও করোনা ভাইরাসের মহামারীর আক্রমণ থেকে দেশবাসী, প্রিয় মাতৃভূমি, মুসলিম উম্মাহ ও বিশ্ববাসীকে সুরক্ষা ও নিরাপদ রাখতে মহান আল্লাহর দরবারে বিশেষ দোয়া করার জন্য দেশের ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের প্রতি আহ্বান জানানো হয়েছে।’

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক দেশের আলেম-ওলামা, পীর-মাশায়েখ, মসজিদের খতিব, ইমাম, মুয়াজ্জিন, মাদ্রাসার অধ্যক্ষ, শিক্ষকসহ সব ধর্মপ্রাণ মুসলমানকে দোয়া করার অনুরোধ জানিয়েছেন।

কোন মন্তব্য নেই