ত্রাণ বিতরণে ঘুষ নেয়ায় মেম্বারকে গণধোলাই

0
.

দিনাজপুরের বিরল উপজেলায় ত্রাণের চালসহ খাদ্যসামগ্রী পাইয়ে দেয়ার নামে ঘুষ নেয়ার সময় এক ইউপি সদস্যকে (মেম্বার) গণধোলাই দিয়েছে জনতা। পরে তাকে পুলিশের হাতে তুলে দেয়া হয়।

গতকাল বৃহস্পতিবার (২৩ এপ্রিল) রাতে বিরল উপজেলার ৭ নম্বর বিজোড়া ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের ভবানীপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

গণধোলাইয়ের শিকার ইউপি সদস্যের নাম আমিনুল ইসলাম আতর। তিনি বিরল উপজেলার ৭ নম্বর বিজোড়া ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য এবং ভবানীপুর গ্রামের রুস্তম আলীর ছেলে।

শুক্রবার (২৪ এপ্রিল) সকালে এ ঘটনায় ভবানীপুর গ্রামের হামিদুর রহমানের ছেলে আল মামুন বাদী হয়ে ইউপি সদস্য আমিনুল ইসলামের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেছেন।

মামলার এজাহারে বাদী উল্লেখ করেছেন, করোনাভাইরাসের কারণে মানুষকে ঘরে রাখতে ত্রাণ সহায়তা দিচ্ছে সরকার। এই সুযোগে কর্মহীন মানুষকে ত্রাণ ও খাদ্যসামগ্রী পাইয়ে দেয়ার নামে ইউপি সদস্য আমিনুল ইসলাম ১২০ থেকে ৩০০ টাকা করে ঘুষ নেন। সাত-আটজনের কাছ থেকে এভাবে ঘুষ নিয়েছেন আমিনুল ইসলাম। ত্রাণের জন্য ঘুষ নেয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে নানা ধরনের কথা বলেন তিনি। এ সময় উত্তেজিত জনতা তাকে আটক করে গণধোলাই দিয়ে পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ইউপি সদস্য আমিনুল ইসলামকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বিরল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ নাসিম হাবিব বলেন, ইউপি সদস্য আমিনুল ইসলাম আতরকে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। ত্রাণ পাইয়ে দেয়ার জন্য ঘুষ নেয়ায় তাকে গণপিটুনি দিয়েছে এলাকাবাসী।

কোন মন্তব্য নেই