মে দিবসে শ্রমিকদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ

শ্রমিকরা এখন সবচেয়ে বেশি স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে-ডা. শাহাদাত

0
.

চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সভাপতি ও বিএনপি’র প্রার্থী ডা. শাহাদাত হোসেন বলেছেন, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা যেখানে ধারণা করছে মে মাসে বাংলাদেশে সবচেয়ে বেশি করোনা আক্রান্ত্র হতে পারে। সেখানে গার্মেন্টস কারখানা খুলে দেওয়ার মাধ্যমে শ্রমিকদের করোনা সংক্রমণের ঝুঁকির দিকে ঠেলে দেওয়া হচ্ছে। গার্মেন্টস মালিকরা নির্দেশনা না মেনে বেশি সংখ্যক শ্রমিক দিয়ে কাজ করানোর কারণে শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখা কঠিন হচ্ছে।

মহান মে দিবস উপলক্ষে শ্রমিকদের মাঝে ত্রাণ বিতরণকালে ডা শাহাদাত হোসেন আরো বলেন, শ্রমিকরা এখন সবচেয়ে বেশি স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে। তারা দিন দিন সংক্রমণের ঝুঁকিতে পড়ছে। তাছাড়া দিনমজুর, রিক্সা সিএনজি সহ বিভিন্ন শ্রমিকরা ত্রাণ না পাওয়ার কারণে জীবিকার তাগিদে জীবনকে বিসর্জন দিয়ে রাস্তায় নেমে পড়েছে। সরকার ঘরে ঘরে ত্রাণ পৌঁছাতে পারলে হয়তো এই পরিস্থিতি হত না। ডা. শাহাদাত আরো বলেন, প্রতিদিন করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বেড়েই চলছে। তাই এই মুহূর্তে সবাইকে ঘরে থেকে বের না হয়ে নিজেকে নিরাপদ রাখতে হবে।

তিনি আজ ১ মে শুক্রবার দুপুরে প্রবর্তকস্থ ট্রিটমেন্ট হাসপাতালের সামনে মহান মে দিবস উপলক্ষে অসহায় শ্রমিকদের মাঝে এবং ৩৫ নং বকশির হাট ওয়ার্ড় ও ৪ নং চাঁন্দগাও ওয়ার্ড এলাকারসহ পাঁচ শতাধিক পরিবারের মাঝে ত্রাণ বিতরণকালে এ কথা বলেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় বিএনপি’র শ্রমবিষয়ক সম্পাদক এম এ নাজিম উদ্দিন, চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির উপদেষ্টা সাংবাদিক জাহিদুল করিম কচি, সাংগঠনিক সম্পাদক কামরুল ইসলাম, কোতয়ালী থানা বিএনপির সভাপতি মনজুর রহমান চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন, নগর বিএনপির সদস্য এডভোকেট তারিক আহমেদ, ৩৫ নং ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি এস এম মফিজ উল্লাহ, ৪ নং ওয়ার্ড বিএনপি’র সভাপতি মোহাম্মদ ইলিয়াস, ৩৫ নং ওয়ার্র্ড বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক নূর হোসেন নুরু, মহানগর যুবদলের সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক মোশারফ হোসেন প্রমুখ নেতৃবৃন্দ।

এছাড়াও চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপি’র সভাপতি ও বিএনপি’র মেয়র প্রার্থী ডা. শাহাদাত হোসেন এর পক্ষ থেকে নগরীর বিভিন্ন ওয়ার্র্ড মাক্স, হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও করোনা সচেতনামূলক মূলক লিফলেট বিতরণ অব্যাহত রয়েছে।

কোন মন্তব্য নেই