চট্টগ্রামে ফটো সাংবাদিকদের পিপিই দিয়েছে পায়েল ফাউন্ডেশন

0
.

চলমান করোনাভাইরাস মোকাবেলায় চিকিৎসক, স্বাস্থ্যকর্মী ও পুলিশের মত সাংবাদিকরাও ফ্রন্টলাইন যোদ্ধা হিসেবে নিরলস কাজ করে যাচ্ছে। ইতিমধ্যে ঢাকাসহ দেশের অনেক জায়গায় সাংবাদিকরা করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। মারা গেছেন একজন সিনিয়র সাংবাদিক। তাই চট্টগ্রামে মাঠে ময়দানে কর্মরত ফটো সাংবাদিকদের স্বাস্থ্য সুরক্ষায় ব্যক্তিগত সুরক্ষা সামগ্রী পিপিই দিয়েছে পায়েল ফাউন্ডেশন।

পিপিইগুলো কর্মরত ফটো সাংবাদিকদের প্রদানের জন্য চট্টগ্রাম ফটো জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের (সিপিজেএ) নেতৃবৃন্দের কাছে বুঝিয়ে দেওয়া হয়।

আজ রবিবার দুপুরে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়ন অফিসে সিইউজের সাধারণ সম্পাদক শামসুল ইসলামের উপস্থিতিতে সিপিজেএ‘র সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রবের কাছে পিপিই হস্তান্তর করেন পায়েল ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ফাহাদ চৌধুরী দিপু। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সিপিজেএ‘র উপদেষ্টা মোহাম্মদ ফারুক।

সিইউজে সাধারণ সম্পাদক শামসুল ইসলাম বলেন, ‘সরকার ঘোষিত লকডাউনের মধ্যেও সাংবাদিকরা বসে নেই। প্রতিনিয়তই করোনাভাইরাস সংক্রান্ত মানুষের তথ্যের চাহিদা মেটাতে নিরলস কাজ করে যাচ্ছে। করোনা মোকাবেলায় নিজেদের ফ্রন্টলাইন যোদ্ধা হিসেবেই নিয়োজিত রেখেছে। এমন পরিস্থিতিতে পায়েল ফাউন্ডেশন যে সাংবাদিকদের সুরক্ষার কথা ভেবেছে সেই ভাবনার জন্য তাঁদের সাধুবাদ জানাই।‘

পায়েল ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ফাহাদ চৌধুরী দিপু বলেন, ‘ঢাকা যাওয়ার পথে হানিফ পরিবহনের চালক ও সুপারভাইজার কর্তৃক আমাদের সন্তান পায়েল হত্যার স্মরণে তার নামে গঠিত ফাউন্ডেশন থেকে আমরা লকডাউন শুরু হওয়ার আগে থেকেই বিভিন্ন ত্রাণ কার্য পরিচালনা করে আসছিলাম। কিন্তু আমাদের মনে হয়েছে যে সাংবাদিক ভাইয়েরা আমাদের জন্য নিজেদের জীবন বিপন্ন করে সংবাদ সংগ্রহ করছেন তাঁদের নিরাপত্তায় সহযোগিতা করা দরকার। সেই ভাবনা থেকেই সীমিত সাধ্যের মধ্যে কর্মরত ফটো সাংবাদিকদের জন্য পিপিইগুলো হস্তান্তর করেছি।‘-প্রেস বিজ্ঞপ্তি

কোন মন্তব্য নেই