নেত্রকোণায় ট্রলার ডুবি: ১১ জনের লাশ উদ্ধার

0
.

নেত্রকোণার কলমাকান্দা উপজেলার গুমাই নদীতে ট্রলার ডুবে কমপক্ষে ১১ জনের মৃত্যুর তথ্য জানা গেছে।  এখনো অনেকে নিখোঁজ রয়েছেন।
আজ বুধবার (৯ সেপ্টেম্বর) সকালে এই ট্রলারডুবির ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা ১১জনের মরদেহ উদ্ধার করতে সমর্থ হয়। নিহতদের অধিকাংশই নারী ও শিশু। এদের মধ্যে পাঁচ জন শিশু, তিন জন নারী ও দুই জন পুরুষ রয়েছে।

কলমাকান্দার বড়খাপন ইউনিয়নের চেয়ারম্যান একেএম হাদিউজ্জামান ১০ জনের মরদেহ উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত হতাহতদের নাম-পরিচয় পাওয়া যায়নি।

.

সুনামগঞ্জের মধ্যনগর বাজার থেকে ৩২-৩৫ জন যাত্রী নিয়ে ট্রলারটি নেত্রকোণার ঠাকুরকোনার উদ্দেশে সকাল ১০টার দিকে রওনা হয়।
কলমাকান্দা উপজেলার বড়খাপন ইউনিয়নের রাজনগর এলাকায় গুমাই নদীতে্ বালুবাহী নৌকার সাথে ধাক্কায় এ দুর্ঘটনা ঘটেছে প্রশাসন সূত্রে জানা যায়।

পুলিশ ও এলাকাবাসী ১১ জনের মৃতদেহ উদ্ধার করেছে। তবে মৃতের সংখ্যা আরো বাড়তে পারে। কলমাকান্দা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সোহেল রানা ১১ জনের মৃত্যু নিশ্চিত করেছেন।  তিনি জানান, সুনামগঞ্জের মধ্যনগর থেকে ছেড়ে আসা যাত্রীবাহী ট্রলারটি নেত্রকোনার ঠাকুরাকোনর উদ্দেশে রওয়ানা দেয়। কলমাকন্দার রাজনগর এলাকায় পৌঁছালে বালুবাহী ট্রলারের সঙ্গে ধাক্কা লাগলে এ ঘটনা ঘটে। ডুবে যাওয়া ট্রলারটিতে ৩৬ জন যাত্রী ছিল বলে জানান তিনি।

তিনি আরও জানান, স্থানীয়রা উদ্ধারের চেষ্টা করছে। উদ্ধার কাজে যাচ্ছে ফায়ার সার্ভিস।

নবাগত জেলা প্রশাসক কাজি আব্দুর রহমান এবং পুলিশ সুপার আকবর আলী মুন্সি ঘটনাস্থলে যাচ্ছেন।

কোন মন্তব্য নেই