ঢাকা ও নওগাঁ উপনির্বাচনেও সরকার ভোটাধিকার হরণ করেছে: ডা. শাহাদাত 

0
.

চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সভাপতি ও বিএনপি’র মেয়র প্রার্থী ডা. শাহাদাত হোসেন বলেছেন, দেশের মানুষের ভোটাধিকার,গণতন্ত্র ও বাকস্বাধীনতা নেই। আজকের ঢাকা-৫ ও নওগাঁও-৬ আসনের উপনির্বাচনে জাতি যা দেখেছে তা একটি হাস্যকর, অগ্রহণযোগ্য ও তামাশার নির্বাচনে পরিণত হয়েছে। ভোটারবিহীন একদলীয় প্রহসনের নির্বাচন ছাড়া এই সরকার জাতিকে কিছুই দিতে পারেনি। শুধু গুম, খুন, নারী নির্যাতন, ধর্ষণ, মামলা ও হামলা এই সরকারের অলংকার হিসেবে পরিণত হয়েছে। এই সরকারের অধীনে কোন নির্বাচনই সুষ্ঠু হবে না। তিনি আজ ১৭ অক্টোবর,

আজ শনিবার, বিকালে ২ নং জালালাবাদ ওয়ার্ড বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের উদ্যোগে করোনা সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ ও মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।

ডা. শাহাদাত হোসেন আরও বলেন, নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের দাম বৃদ্ধির কারণে দেশের আপামর জনগণ আজ দিশেহারা। নিম্নআয়ের মানুষ আধপেটা খেয়ে দিন-যাপন করছে। যেসকল মানুষের আয়ের বেশির ভাগ অংশ ব্যয় হয় খাদ্যদ্রব্য ক্রয়ের জন্য তারা লাগামহীন খাদ্যমূল্য বৃদ্ধির কারণে আজ অসহায়। বাজার সিন্ডিকেট, আমলা এবং ক্ষমতাসীন দল ও জোটের নেতৃবৃন্দের অসৎ চক্রের কারসাজির কারণেই দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি পাচ্ছে।আন্তর্জাতিক বাজারে দাম কমলেও বাংলাদেশে তা হু হু করে বাড়ছে। সরকারের নিস্ক্রিয়তা এসকল অসৎ চক্রকে উৎসাহ যুগিয়ে যাচ্ছে।

প্রধান বক্তার বক্তব্যে চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবুল হাশেম বক্কর বলেন, জেল জুলুম সহ্য করতে করতে বিএনপি নেতাকমীর্দের পিঠ দেয়ালে ঠেকে গেছে। জেলের ভয় বিএনপি নেতাকমীর্রা পায় না। এবার প্রতিরোধের মাধ্যমে জনগণের অধিকার ফিরিয়ে দেওয়ার জন্য বিএনপির নেতাকমীর্রা জনগণকে সাথে সরকারের পতন নিশ্চিত করা হবে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সি: সহসভাপতি আবু সুফিয়ান বলেন, বর্তমান গণতন্ত্রহীন রাষ্ট্রে পরিণত হয়েছে প্রিয় স্বদেশ।জনগণের ভোটে নির্বাচিত সরকার না থাকায় দেশে বিচারহীনতার সংস্কৃতি তৈরি হওয়ায় ধর্ষকেরা বার বার ধর্ষণ করার সাহস পাচ্ছে। ধর্ষনের ঘটনায় যাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ এসেছে তারা সবাই ছাত্রলীগের রাজনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত ও চিহ্নিত সন্ত্রাসী।২ নং জালালাবাদ ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি মো. বেলালের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মো. মামুন আলমের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন ভিপি নাজিম উদ্দিন,চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সহসভাপতি এস এম আবুল ফয়েজ, যুগ্ম সম্পাদক ইয়াছিন চৌধুরী লিটন, আনোয়ার হোসেন লিপু, পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক ইয়াকুব চৌধুরী, বায়েজিদ থান বিএনপির সভাপতি আবদুল্লাহ আল হারুন,বায়েজিদ থান বিএনপির সাবেক সভাপতি সৈয়দ জাকারিয়া সেলিম,সাধারণ সম্পাদক আবদুল কাদের জসিম, আরো উপস্থিত ছিলেন নগর বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক রফিকুল ইসলাম, প্রকাশনা সম্পাদক আবদুল হাই, মহিলা কাউন্সিলর প্রার্থী রোকসানা বেগম মাদু, বিএনপি নেতা এড. আবু তাহের, মকবুল হোসেন, ইসমাঈল, ফোরকান, নুরুন্নবী, মিলন, মো.আজগর, মো. খোরশেদ, মো. আলমগীরসহ থানা ওয়ার্ড ও অঙ্গসংগঠনের প্রমুখনেতৃবৃন্দ।

কোন মন্তব্য নেই