সার্কিট হাউসে বসে মন্ত্রী-এমপিরা কেন্দ্র দখলের পায়তারা চালাচ্ছে: ডা. শাহাদাত

0
.

চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির আহবায়ক ও চসিক নির্বাচনে বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী ডা. শাহাদাত হোসেন বলেছেন, সার্কিট হাউসে বসে সরকারী মন্ত্রী-এমপিরা কেন্দ্র দখলের পায়তারা চালাচ্ছে। ২০১৮ সালে দিনের ভোট রাতে ডাকাতি করে যেভাবে মন্ত্রী-এমপি হয়েছে, ঠিক সেই ভোট ডাকাতির অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে আসন্ন সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে কিভাবে জয়লাভ করা যায় তার হীন ষড়যন্ত্রে লিপ্ত আওয়ামী মন্ত্রী-এমপিরা। কাজেই দেশ প্রেমিক চট্টগ্রামবাসীকে আগামী ২৭ তারিখ নির্বাচনে সমস্ত ষড়যন্ত্রের জাল ছিন্ন করে ভোটকেন্দ্রে গিয়ে দাঁত ভাঙ্গা জবাব দেওয়ার জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে। কোন বহিরাগত যাতে ভোট সেন্টারে আমার মা-ভাই-বোনদের ভোট দিতে যাতে বাধা দিতে না পারে সেজন্য স্ব-স্ব সেন্টারে সবাইকে ব্যাঙ্গালোর ভ্যানগাড়ের ভূমিকায় অবতীর্ণ হতে হবে।

তিনি শনিবার (২ জানুয়ারি বিকালে) নগরীর ২৮ নং ওয়ার্ড বিএনপির করোনা সুরক্ষা সামগ্রী ও মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন।

ডা. শাহাদাত হোসেন আরো বলেন, সরকারের চরিত্র প্রকাশের জন্য এবং গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার জন্য স্থানীয় সরকার নির্বাচনে বিএনপি অংশ নিচ্ছি। সরকারের দুর্নীতি ও দুঃশাসনে অতিষ্ঠ দেশের জনগন। আওয়ামী লীগ এখন দেউলিয়া সংগঠনে পরিণত হয়েছে। তাই তারা জনগনের মতমতের উপর ভরসা না করে প্রশাসন ও দলীয় সন্ত্রাসী দিকে কেন্দ্র দখল করে নির্বচনে জয় লাভ করাকে অন্যতম হাতিয়ার হিসবে ব্যবহার করছে। চসিক নির্বচনের তফসিল ঘোষনার পর নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্গন করে চট্টগ্রাম সার্কিট হাউজে সরকারী দলের মন্ত্রী এমপি’রা বৈঠক করছে। বর্তমান সরকার জনগণের ভোটাধিকার হরণ করার মধ্য দিয়ে সকল মৌলিক অধিকার কেড়ে নিয়েছে।

প্রধান বক্তার বক্তব্যে চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির আহবায়ক কমিটির সদস্য সচিব আবুল হাশেম বক্কর বলেন, বর্তামান আওয়ামী লীগ সরকারের অধীনে হওয়া প্রতিটি নির্বাচনে চলছে ব্যাপক কারচুপি এবং জবরদখল উৎসব। সামনে চসিক নির্বাচন, সেখানে যদি কারচুপি করা হয় তাহলে চট্টগ্রাম থেকে সরকার পতনের আন্দোলনের বৃহত্তর কর্মসূচি ঘোষণা হবে। ইতিমধ্যে চসিক নির্বাচন নিয়ে সরকারের মন্ত্রী এমপিরা চট্টগ্রাম সার্কিট হাউজে বসে ষড়যন্ত্রের জাল তৈরিতে লিপ্ত হয়েছে। ভোট ডাকাতি করতে বিভিন্ন জেলা থেকে সন্ত্রাসী ভাড়া করে আবার পরিকল্পনা চলছে। আমরা প্রাসন ও নির্বাচন কমিশনের কাছে আহবান জানাবো, চসিক নির্বাচনে শান্ত চট্টগ্রামের পরিবেশকে অশান্ত করবেন না।

২৮ নং ওয়ার্ড় বিএনপির সভাপতি কাউন্সিলর প্রার্থী এস.এম.জামাল উদ্দীন জসিম এর সভাপতিত্বে সাধারণ সম্পাদক জিয়াউর রহমান জিয়া এর সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথির হিসেবে আরও উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপি’র যুগ্ন আহবায়ক এস.এম সাফুল আলম, ইয়াছিন চৌধুরী লিটন, সদস্য মন্জুর আলম মন্জু।

আরও উপস্থিত ছিলেন বিএনপি ডবলমুরিং থানা বিএনপির সভাপতি মোহাম্মদ সেকান্দর , সাধারণ সম্পাদক হাজি বাদশা মিয়া, সিঃ যুগ্ন সম্পাদক মোহাম্মদ জাহিদ হোসেন, মহিলা কাউন্সিলর প্রার্থী কামরুন নাহার লিজা, সাংগঠনিক সম্পাদক নুর উদ্দিন সোহেল, আলহাজ্ব আবু জাফর লক্ষি, সেলিম খান , ২৮ ওয়ার্ড বিএনপির সিঃ সহ সভাপতি আবদুস সবুর আকবর , সিঃ যুগ্ন সম্পাদক আবদুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক হাজি আব্দুর রহিম, ছাত্র দল নেতা সৈয়দ রাজিবুল রানা, ইমরান হেসেন বাপ্পি, শেখ ইয়াসিন নওশাদ, সজল বড়ুয়া, যুবদল নেতা আবু সৈয়দ রিকুু, মোহাম্মদ রাসেল হাসান, মোহাম্মদ এমরাজ, সাদ্দাম, তাজুল আলম রিংটু , মোহাম্মদ নুরু সহ বিএনপি, যুবদল, ছাত্রদল, শ্রমিকদল, মহিলা দল প্রমুখ নেতৃবৃন্দ।

কোন মন্তব্য নেই