পটিয়া পৌরসভা: আ’লীগের মেয়র প্রার্থী আইয়ুব বাবুল

0
.

পটিয়া (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধিঃ
চট্টগ্রামের পটিয়া পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগ দলীয় মেয়র প্রার্থী মনোনীত হয়েছেন চট্টগ্রাম দক্ষিন জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ও পটিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মোঃ আইয়ুব বাবুল।

আজ বুধবার রাতে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন বোর্ড এ সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত করেছেন বলে দলীয় সূত্রে জানা গেছে ।

চতুর্থ ধাপে দেশের ৫৬টি পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে দলীয় প্রার্থী চূড়ান্ত করে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ।

আজ বুধবার বিকেল ৪টায় প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে এ সভা শুরু হয়। স্থানীয় সরকার জনপ্রতিনিধি মনোনয়ন বোর্ডের এ সভায় সভাপতিত্ব করছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি এবং স্থানীয় সরকার জনপ্রতিনিধি মনোনয়ন বোর্ডের সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এসময় প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে আয়োজিত দলের স্থানীয় সরকার জনপ্রতিনিধি মনোনয়ন বোর্ডের সভায় এ প্রার্থী চূড়ান্ত করা হয়। বৈঠক শেষে দলের কেন্দ্রীয় দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া স্বাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে চূড়ান্ত প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করা হয়।

এই ঘোষণার মধ্য দিয়ে পটিয়া পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনীত একমাত্র প্রার্থী তথা নৌকার মাঝি হলেন সাবেক এ ছাত্রনেতা মো. আইয়ুব বাবুল ।

আইয়ুব বাবুল দক্ষিণ চট্টগ্রামে হাজার হাজার নেতা কর্মী সৃষ্টি করেছেন। তার হাতে গড়া দক্ষিণ চট্টগ্রামের কর্মীরা জেলা পরিষদ, উপজেলা ও পৌরসভা ও বিভিন্ন ইউনিয়ন পরিষদে জনপ্রতিনিধি হিসবে দায়িত্ব পালন করে আসছে। দলীয় নেতা কর্মীরা ছাড়াও সাধারণ মানুষের কাছে তাদের যথেষ্ঠ গ্রহণ যোগ্যতা ও সামাজিকভাবেও জনপ্রিয়তা রয়েছে সাবেক এ ছাত্র নেতার।

আইয়ুব বাবুল ১৯৯৩ সালে চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি, পটিয়া পৌরসভা আওয়ামী লীগের সাবেক ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক, বর্তমান পটিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি হিসেবে দায়িত্বে রয়েছেন। আইয়ুব বাবুল আওয়ামী লীগের  দুঃসময়ে শাপলা কুঁড়ি আসর ও বঙ্গবন্ধু পরিষদসহ বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের মাধ্যমে আওয়ামী লীগের রাজনীতিকে ধরে রেখেছে।

পটিয়া পৌরসভা ৩নং ওয়ার্ড সুচক্রদণ্ডী (মহল্লার বাড়ি, বদি মাস্টার বাড়ি’র) মরহুম আমিনুর রহমানের পুত্র মো: আইয়ুব বাবুল। তিনি স্কুল জীবন থেকে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হাতে গড়া সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের রাজনীতিতে যোগদান করেন। (১৯৯৩-১৯৯৬) চট্টগ্রাম দক্ষিন জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি। সাবেক সাধারণ সম্পাদক, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, সুচক্রদন্ডী ইউনিয়ন (১৯৮১-১৯৮২)।  সাংগঠনিক সম্পাদক, পটিয়া উপজেলা ছাত্রলীগ (১০৮৩-১৯৮৪)। সভাপতি পটিয়া সরকারি কলেজ ছাত্রলীগ (১৯৮৫-১৯৮৬)। সাবেক সদস্য চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা ছাত্রলীগ (১৯৮৫-১৯৮৬)। সাবেক সাধারন সম্পাদক, পটিয়া উপজেলা শাখা (১৯৮৭-১৯৯১)। সাবেক সদস্য বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটি (১৯৯৩)। সাবেক ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক পটিয়া পৌরসভা আওয়ামী লীগ, বর্তমান সহ-সভাপতি পটিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগ দায়িত্ব পালন করছেন।
তিনি শাপলা কুড়ির আসর ও বঙ্গবন্ধু পরিষদ নামে দুই সংগঠনের প্রতিষ্ঠা করেন। এই সংগঠনের মাধ্যমে তিনি মুজিব আদর্শের অসংখ্যা নেতাকর্মী সৃষ্টি কারিগর করেন নেতাকর্মীরা জানান।

এ ব্যাপারে প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে  মোঃ আইয়ুব বাবুল পাঠক ডট নিউজকে বলেন-মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের ও জাহাঙ্গীর কবির নানক তাদের প্রতি আন্তরিক কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করছি। তারা আমাকে মূল্যায়ন করে নমিনেশন পাওয়ার জন্য সার্বিক সহযোগিতা করেছেন।  আমি অক্ষরে অক্ষরে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা পালন করব এবং জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আর্দশকে গ্রাম হতে গ্রামান্তরে সকলের মাঝে পৌঁছে দিব। পাশাপাশি আমার রাজনৈতিক শুভাকাঙ্ক্ষীরা ও কর্মীরা যারা আমার পাশে থেকে আমাকে অনুপ্রানিত করেছেন আমি আমার জীবন দিয়ে হলেও তাদের স্বার্থ রক্ষার জন্য সর্বাত্নক সহযোগিতা করে যাব ইনশাআল্লাহ।

আগামী ১৪ ফেব্রুয়ারী অনুষ্ঠিত হবে (ইভিএম) ভোটযুদ্ধ। সে যুদ্ধে পৌরবাসী জানতে পারবে কে হবেন পরবর্তী ৫ বছরের জন্য পটিয়া পৌরসভার মেয়র।

উল্লেখ্য চতুর্থ ধাপের ৫৬টি পৌরসভা নির্বাচনে মনোনয়ন ফরম জমা দিয়েছেন আওয়ামী লীগের তিন শতাধিক প্রার্থী। এদের মধ্য থেকেই বাছাই করা হবে নৌকার মনোনীত প্রার্থীদের। মনোনয়নপত্র যাচাইবাছাই হবে ১৯ জানুয়ারি। প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ২৬ জানুয়ারি। নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে আগামী ১৪ ফেব্রুয়ারি। ৫৬টি পৌরসভার মধ্যে ৩১টি ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) এবং ২৫টি পৌরসভায় ব্যালটের মাধ্যমে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

কোন মন্তব্য নেই