দেশজুড়ে করোনার টিকা প্রয়োগ শুরু

0
.

আজ রোববার থেকে সারাদেশে করোনার টিকাদান কর্মসূচি শুরু হচ্ছে। এদিন টিকা নেবেন প্রধান বিচারপতি, মন্ত্রী পরিষদ সচিব, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এবং স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

গতকাল শনিবার বিকেলে ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানিয়েছেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ডাক্তার এবিএম খুরশীদ আলম। তিনি বলেন, ঢাকায় ৫০টি হাসপাতালে টিকা দেয়া হবে, এছাড়া সারাদেশে ১ হাজার ৫টি হাসপাতালে ২ হাজার ৪শ’ ৪টি টিম কাজ করবে।

ভারত থেকে করোনার ভ্যাকসিন আসার পর ২৭শে জানুয়ারি রাজধানীর কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে শুরু হয় পরীক্ষামূলক টিকা দেয়ার কাজ। দুই দিনে পাঁচশ’ ৬৭ জনকে দেয়া হয় ভ্যাকসিন।

এরপরই শুরু হয় ভ্যাকসিন নেয়ার জন্য রেজিষ্ট্রেশন কার্যক্রম। গতকাল শনিবার দুপুর পর্যন্ত টিকা নিতে তিন লাখ ২৮ হাজার ১৩ জন রেজিষ্ট্রেশন করেছে বলে জানান স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহা পরিচালক। বলেন, ইতোমধ্যে টিকা দান কর্মসূচীর ৭৫ শতাংশ প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে।

তবে সতর্কতার অংশ হিসেবে গুরুতর অসুস্থ এবং ওষুধে এলার্জি আছে এমন ব্যক্তিদের ভ্যাকসিন না নেয়ার পরামর্শ দেয়া হয়।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা বলেন, ‘রেজিষ্ট্রেশন করেছে এমন কোন মানুষ টিকা না নিয়ে ফেরত যাবেন না। রেজিষ্ট্রেশনকারীরা এসএমএস এর মাধ্যমে জানতে পারবেন কেন্দ্র এবং তারিখ।’

প্রতিটি টিমে ১৫০ জনকে ভ্যাকসিন দেয়ার সক্ষমতা রয়েছে বলেও জানানো হয়। প্রতিটি জেলা উপজেলায় সকাল আটটা থেকে শুরু হয়ে আজ দুপুর আড়াইটা পর্যন্ত চলবে টিকাদান কর্মসূচী।

চার সপ্তাহ পর করোনার দ্বিতীয় ডোজ দেয়া হবে বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। ২৭ ও ২৮শে জানুয়ারি যারা টিকা নিয়েছেন তারা সবাই সুস্থ আছেন বলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

কোন মন্তব্য নেই