VIVO IPL 2016
গুজরাট লায়ন্স’কে হারিয়ে ফাইনালে কেহলী’র বেঙ্গালুরু

0
রয়েল চ্যালেঞ্জার বেঙ্গালুরু অধিনায়ক বিরাট কোহলী। ছবিঃ ইন্টানেট
রয়েল চ্যালেঞ্জার বেঙ্গালুরু অধিনায়ক বিরাট কোহলী। ছবিঃ ইন্টানেট

ভিভো আইপিএল ২০১৬ এর ১ম কোয়ালিফায়ারে শুরেশ রাইনার গুজরাট লায়ন্স’কে ৪ উইকেটে হারিয়ে ফাইনাল নিশ্চিত করেছে বিরাট কোহলী’র রয়েল চ্যালেঞ্চার বেঙ্গালুরু। ১০ বল হাতে রেখে ম্যাচ জেতানোর মূল নায়ক এবি ডি ভিলিয়ার্স। তবে, বল হাতে শেন ওয়াটসন আর গুজরাটের কুলকার্নি দারুণ ম্যাজিক দেখান।

টসে জিতে বিরাট কোহলী রাইনার গুজরাট লায়ন্স’কে ব্যাটিং এর আবেদন জানায়। আগে ব্যাট করা গুজরাট লায়ন্স নির্ধারিত ২০ ওভারে অলআউট হওয়ার আগে ১৫৮ রান সংগ্রহ করে। জবাবে, ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়েও ১৮.২ ওভার ব্যাট করে ৬ উইকেট হারানো বেঙ্গালুরু জয় তুলে নেয়। এম চিন্নাস্বামী স্টেডিয়ামে স্বাগতিক হিসেবে কোয়ালিফায়ার-১ এর ম্যাচে মাঠে নেমে বেঙ্গালুরু ১ম দল হিসেবে আইপিএল নিশ্চিত করে।

প্রথমেই গুজরাটের হয়ে ওপেনার ব্রেন্ডন ম্যাককালাম ১ রানে বিদায় নেন। দ্রুত বিদায় নেন আরেক ওপেনার অ্যারন ফিঞ্চ (৪)। তিন নম্বরে নেমে দলপতি সুরেশ রায়না এক রান করেই সাজঘরে ফেরেন। বিপাকে পড়া গুজরাটকে টেনে তোলেন দিনেশ কার্তিক এবং ডোয়াইন স্মিথ। কার্তিক ৩০ বলে ২৬ রান করলেও ইনিংস সর্বোচ্চ ৭৩ রান করেন স্মিথ। ক্যাবিবীয় এই তারকা ৪১ বলে ৫টি চার আর ৬টি ছক্কায় তার ইনিংসটি সাজান। এছাড়া, রবীন্দ্র জাদেজা ৩, ডোয়াইন ব্রাভো ৮, দিওভেদি ১৯, কুলকার্নি ১০ রান করেন।

বেঙ্গালুরুর হয়ে ৪ ওভারে মাত্র ২৯ রান দিয়ে সর্বোচ্চ চারটি উইকেট দখল করেন শেন ওয়াটসন। দুটি করে উইকেট পান ইকবাল আবদুল্লাহ ও ক্রিস জর্ডান। ১৫৯ রানের টার্গেটে ব্যাটিংয়ে নেমে বিপর্যয়ে পড়ে বেঙ্গালুরু। ওপেনার ক্রিস গেইল ৯ রান করলেও ইনফর্ম ব্যাটসম্যান কোহলি ও লোকেশ রাহুল রানের খাতা খোলার আগেই বিদায় নেন। তিন টপঅর্ডার ব্যাটসম্যানকেই ফিরিয়ে দেন কুলকার্নি।

এক রান করা শেন ওয়াটসনকে ফেরান জাদেজা। শূন্য রানে ফেরা শচীন বেবিও কুলকার্নির শিকার হলে দলীয় ২৯ রানেই পাঁচ উইকেট হারায় বেঙ্গালুরু। এরপর ব্যাটিংয়ের হাল ধরেন এবি ডি ভিলিয়ার্স ও স্টুয়ার্ট বিন্নি। তাদের ৩৯ রানের জুটি ভাঙে ইনিংসের দশম ওভারে। জাদেজা ফেরান ১৫ বলে ২১ রান করা বিন্নিকে।

দলীয় ৬৮ রানের মাথায় বেঙ্গালুরুর ছয় ব্যাটসম্যান ফিরলেও একপ্রান্ত আগলে রাখেন প্রোটিয়া তারকা ভিলিয়ার্স। ইকবাল আবদুল্লাহর সঙ্গে অবিচ্ছিন্ন ৯১ রানের জুটি গড়ে হেরে যাওয়া ম্যাচকে জিতিয়ে ফেরেন ভিলিয়ার্স। ৪৭ বলে ৫টি চার আর ৫টি ছক্কায় ইনিংস সর্বোচ্চ ৭৯ রান করেন ভিলিয়ার্স। আর ২৫ বলে ২টি চার আর একটি ছক্কায় ৩৩ রান করেন আবদুল্লাহ। দু’জনই অপরাজিত থেকে মাঠ ছাড়েন।

১৮.২ ওভার ব্যাট করে ৬ উইকেট হারানো বেঙ্গালুরু জয় তুলে নেয়। ম্যাচ শেরার পুরষ্কার পান ৪৭ বলে ৭৯ করা এবি ডি ভিলিয়ার্স।

গুজরাটের হয়ে ৪ ওভারে মাত্র ১৪ রান দিয়ে সর্বোচ্চ চারটি উইকেট দখল করেন কুলকার্নি। বাকি দুটি উইকেট নেন ৪ ওভারে ২১ রান খরচ করা জাদেজা।

এ ম্যাচে হেরে গেলেও ফাইনালে উঠার সুযোগ থাকছে গুজরাটের। সাকিব আল হাসানের কলকাতা এবং মুস্তাফিজের হায়দ্রাবাদের মধ্যকার জয়ী দলের বিপক্ষে জিততে পারলে আবারো বেঙ্গালুরুর মুখোমুখি (ফাইনালে) হতে পারবে তারা।

Advertisements

কোন মন্তব্য নেই

একটি মন্তব্য দিন