নগরীতে লকডাউন অমান্য

‘কুটুমবাড়ী’সহ কয়েকটি প্রতিষ্ঠানকে ৪৭ হাজার টাকা জরিমানা

0
.

সরকারী নির্দেশনা লকডাউন অমান্য করে রেস্টুরেন্টের ভিতর বসিয়ে খাবার বিক্রি করার দায়ে নগরীর নগরীর ওয়াসা মোড়ের কুটুম্ববাড়ী রেস্টুরেন্টকে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমান আদালত।  এছাড়া নগরীতে আরও কয়েকটি প্রতিষ্ঠানকে মোট ৪৬ হাজার ৮শ টাকা জরিমানা করা হয়।

আজ বৃহস্পতিবার (৮ এপ্রিল) নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফাহমিদ আফরোজ এ জরিমানা করেন।

.

জানাগেছে লকডাউনের মধ্যে সরকারী নির্দেশনা অমান্য করে প্রতিষ্ঠানটি হোটেলে বসিয়ে কাস্টমাদের কাছে খাবার পরিবেশন করছে।খবর পেয়ে অভিযান পরিচালনা করেন চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিট্রেট ফাহমিদ আফরোজ। সরকারী নির্দেশনা অমান্যের চিত্র হাতেনাতে ধরতে পেরে কুটুম্ববাড়ী রেস্টুরেন্ট কর্তৃপক্ষকে জরিমানা করেন নগদ ৩০ হাজার টাকা।

এছাড়া আজ জেলা প্রশাসন চট্টগ্রামের ছয়জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নগরীর বিভিন্ন স্থানে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন। এ সময় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জনাব নিবেদিতা চাকমা নগরীর কোতোয়ালি ও সদরঘাট এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা কালে ৮ টি মামলা দায়ের করে ৩২০০ টাকা অর্থদণ্ড আদায় করেন

এদিকে সাধারণ মানুষের মাঝে জেলা প্রশাসন, চট্টগ্রামের পক্ষ থেকে মাস্ক বিতরণ করা হয়েছে।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ ইনামুল হাছান নগরীর ডবলমুরিং এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করার সময় স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালনে জনসাধারণকে দিক নির্দেশনা প্রদান করেন এবং সচেতনতার লক্ষ্যে মাস্ক বিতরণ করেন।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ আশরাফুল আলম নগরীর পাহাড়তলী এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার ব্যাপারে নির্দেশনা প্রদান করার সময় ১ টি মামলায় ১০০০ টাকা অর্থদণ্ড আদায় করেন এবং সাধারণ মানুষের মাঝে মাস্ক বিতরণ করেন ।

অপর এক অখিযানে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট গালিব চৌধুরী নগরীর কোর্ট বিল্ডিং, ফিরিঙ্গি বাজার, টেরি বাজার এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে ১০ টি মামলা দায়ের করে মোট ৯৬০০ টাকা অর্থদণ্ড আদায় করেন এবং জেলা প্রশাসনের পক্ষে মাস্ক বিতরণ করেন।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফাহমিদা আফরোজ নগরীর চকবাজার, জিইসি এবং ওয়াসা এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করার সময় সাধারণ মানুষ এবং রেস্টুরেন্টে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার বিষয়ে নির্দেশনা প্রদান করার সময় ৩ টি মামলায় ৩৩০০০ টাকা অর্থদণ্ড আদায় করেন এবং জনসাধারণের মাঝে মাস্ক বিতরণ করেন।

পতেঙ্গা, ইপিজেড ও বন্দর এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ জিল্লুর রহমান। তিনিও স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালনে সচেতনতা এবং মাস্ক বিতরণ করেন।

কোন মন্তব্য নেই