বরিশালে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে ২ জন নিহত

0
.

বরিশালের মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলার দক্ষিণ উলানিয়ায় আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষে ২ জন নিহত হয়েছেন। শনিবার রাত ১২টার পর শুরু হয়ে ফজরের আজান পর্যন্ত দফায় দফায় এসব সংঘর্ষ হয়।

দক্ষিণ উলানিয়ায় স্থগিত থাকা নির্বাচনের চেয়ারম্যান প্রার্থী নৌকা প্রতীকের মিলন চৌধুরী ও আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী রুমা বেগম সরদারের (আনারস) সমর্থকদের মধ্যে এই সংঘর্ষ হয়েছে। সংঘর্ষে আহত উভয়পক্ষের ১২ জন বরিশাল শেরেবাংলা চিকিৎসা মহাবিদ্যালয় (শেবাচিম) হাসপাতাল ও মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন আছেন।

নিহতরা হচ্ছেন- নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মিলন চৌধুরীর চাচাত ভাই শাহিদ চৌধুরী (৩৫) ও রুমা বেগমের সমর্থক সাইফুল ইসলাম সরদার (২৮)। সাইফুল ইসলাম শনিবার মধ্যরাতে সংঘর্ষ চলাকালে ঘটনাস্থলে এবং শাহিদ চৌধুরীকে আহতবস্থায় বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে আনার পর তার মৃত্যু হয়।

এসব তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করে মেহেন্দিগঞ্জ থানার ওসি আবুল কালাম আজ রবিবার দুপুর ১টায় জানান, উলানিয়া এলাকার পরিস্থিতি এখন পুলিশের নিয়ন্ত্রণে আছে। সেখানে বিপুল সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। সংঘর্ষে জড়িতদের ধরতে পুলিশি অভিযান চলছে।

নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মিলন চৌধুরী জানান, তিনি ঢাকায় থাকেন। রমজানের আগে মায়ের সঙ্গে দেখা করার জন্য বৃহস্পতিবার উলানিয়ায় যান। এরপর থেকে বিদ্রোহী প্রার্থী রুমা বেগমের লোকজন তাকে হুমকি-ধমকি দিতে থাকে এলাকা ত্যাগ করার জন্য। আজ রোববার রাত ১২টার দিকে রুমা বেগমের ছেলে তারেক সরদারের নেতৃত্বে বিপুল সংখ্যক সন্ত্রাসী লালগঞ্জ বাজারে হামলা করে। নৌকার সমর্থক ব্যবসায়ীদের ব্যাপক মারধর ও দোকানপাট ভাংচুরের পর সন্ত্রাসীরা তার (মিলন চৌধুরী) বাড়ির দিকে এগুতে থাকে। এসময় তার সমর্থকরা সংঘবদ্ধ হয়ে পাল্টা প্রতিরোধ গড়ে তুললে দু’পক্ষের মধ্যে মুখোমুখি সংঘর্ষ বেঁধে যায়।

অপরদিকে বিদ্রোহী প্রার্থী রুমা বেগমের ভাই অবিভক্ত উলানিয়া ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান লিটন বলেন, নৌকার প্রার্থী মিলন চৌধুরী পাশের ভোলা জেলা থেকে বিপুল সংখ্যক সন্ত্রাসী ভাড়ায় এনে শনিবার মধ্যরাতে লালগঞ্জ বাজারে হামলা করে। তারা আনারস প্রতীকের সমর্থকদের বাড়ি ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা ভাংচুর ও লুটতরাজ চালায়। আনারস প্রতীকের সমর্থক সাইফুল ইসলামকে লালগঞ্জ বাজার সংলগ্ন কালভাটের ওপর কুপিয়ে ঘটনাস্থলেই হত্যা করা হয়েছে। হামলাকারীরা কালিগঞ্জ বাজারের দিকে এগুতে থাকলে আনারস প্রতীকের কর্মী সমর্থকরা পাল্টা প্রতিরোধ গড়ে তোলে। নৌকার সমর্থক শাহিদ চৌধুরী কিভাবে নিহত হলো এ বিষয়ে তার কিছু জানা নেই বলে দাবি করেন ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান লিটন।

উল্লেখ্য, মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলার ঐতিহ্যবাহী এলাকা মেঘনা তীরের উলানিয়া ইউনিয়ন। এটি বিভক্ত করে উত্তর ও দক্ষিণ উলানিয়া নামে পৃথক দুটি ইউনিয়ন গঠন করা হয়েছে। এনিয়ে দীর্ঘদিন মামলা চলার পর গত ১০ ডিসেম্বর নির্বাচনের দিন ধার্য্য হয়েছিল। জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ এমপির সমর্থক মিলন চৌধুরী দক্ষিণ উলানিয়ায় এবং জামাল হোসেন মোল্লা উত্তর উলানিয়ায় নৌকা প্রতীকের প্রার্থী হন। তাদের বিরুদ্ধে আনারস প্রতীক নিয়ে বিদ্রোহী প্রার্থী হন দক্ষিণ উলানিয়ায় সাবেক চেয়ারম্যান মরহুম আলতাফ সরদারের স্ত্রী রুমা বেগম সরদার ও উত্তর উলানিয়ায় নুরুল ইসলাম মিঠু চৌধুরী। এই দুই প্রার্থী স্থানীয় সংসদ সদস্য (মেহেন্দিগঞ্জ-হিজলা) পংকজ দেবনাথের সমর্থক।

মনোয়নপত্র দাখিলের পর থেকে দুপক্ষের লাগাতার সংঘর্ষে পরিস্থিতির চরম অবনতি হলে নির্বাচন স্থগিত করা হয়। তারপরও প্রতিদিন দু’পক্ষের মধ্যে হামলা-পাল্টা হামলা উলানিয়ায় নিয়মিত ঘটনায় পরিণত হয়েছে। উত্তর উলানিয়ার নৌকার প্রার্থী জামাল হোসেন মোল্লা সংসদ সদস্য পংকজ নাথের সমর্থকদের দায়ের করা হত্যা মামলায় প্রায় দুইমাস কারাগারে রয়েছেন।

কোন মন্তব্য নেই