রাসুল (সা.) রমজানে যে ৪টি আমল বেশি করতেন

0
.

মুসলমানদের জন্য পবিত্র মাহে রমজান আত্মশুদ্ধি অর্জনের মাস । রমজান অনেক মর্যাদা ও ফজিলতপূর্ণ মাস;। এ মাসে মহান আল্লাহ বান্দার প্রতি অবিরত রহমত ও বরকত নাজিল করেন’। মাগফেরাত ও নাজাত দান করেন’।

পবিত্র রমজান মাস হচ্ছে একজন মুমিনের জন্য আল্লাহ তাআলার অধিক থেকে অধিকতর নৈকট্য লাভের মাস। এ মাসে পবিত্র কোরআন নাজিল হয়েছে। এ মাস তাকওয়া ও সংযম প্রশিক্ষণের মাস।আল্লাহপাক পবিত্র কোরআনে ঘোষণা করেন ,ﻳَﺎ ﺃَﻳُّﻬَﺎ ﺍﻟَّﺬِﻳﻦَ ﺁَﻣَﻨُﻮﺍ ﻛُﺘِﺐَ ﻋَﻠَﻴْﻜُﻢُ ﺍﻟﺼِّﻴَﺎﻡُ ﻛَﻤَﺎ ﻛُﺘِﺐَ ﻋَﻠَﻰ ﺍﻟَّﺬِﻳﻦَ ﻣِﻦْ ﻗَﺒْﻠِﻜُﻢْ ﻟَﻌَﻠَّﻜُﻢْ ﺗَﺘَّﻘُﻮﻥَ
‘হে ঈমানদারগণ, তোমাদের উপর রোজা ফরজ করা হয়েছে। যেমন ফরজ করা হয়েছিলো তোমাদের পূর্ববর্তী লোকদের উপর। যেন তোমরা তাকওয়া অর্জন করতে পার। ’(সুরা বাকারা, আয়াত: ১৮৩)

রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম পুরো রমজান তাসবিহ, ইসতেগফার ও দোয়ার মাধ্যমে অতিবাহিত করতে বিশেষ আদেশ দিয়েছেন । যাতে মানুষ এ বিশেষ আমল ও দোয়ার মাধ্যমে নিজেকে দুনিয়া ও পরকালের কল্যাণে পূর্ণাঙ্গভাবে তৈরি করতে পারেন’।

বিশ্বনবি হযরত মুহাম্মদ (সা.) রমজান মাসে চারটি আমল বেশি বেশি করে করতে নির্দেশ দিয়েছেন-

১) বেশি বেশি কালেমা শাহাদাত ‘আশহাদু আল্লা ইলাহা ইল্লাল্লাহ’ পড়া।

২) আল্লাহর কাছে বেশি বেশি ইসতেগফার করা।

৩) আল্লাহর কাছে জান্নাত প্রার্থনা করা।

৪) জাহান্নামের আগুন থেকে মুক্তি চাওয়া।

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে এ পবিত্র মাসে উল্লেখিত ৪টি কাজ বেশি বেশি করার তাওফিক দান করুন।

কোন মন্তব্য নেই