হাসপাতালে মাস্ক পরতে বলায় চিকিৎসকে হত্যার হুমকি: ছাত্রলীগ নেতা গ্রেফতার

0
.

হাসপাতালের জরুরি বিভাগে আগত বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবুল কালাম খানকে মাস্ক পরতে বলায় চিকিৎসককে লাঞ্চিত করাসহ হত্যার হুমকি দেয়ার অভিযোগ উঠেছে।

শনিবার বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এই ঘটনা ঘটে। সোমবার (২৬ এপ্রিল) বিকেলে থানায় মামলা দায়েরের পর ছাত্রলীগ নেতা আবুল কালামকে গ্রেফতার করে পুলিশ। গ্রেফতারকৃত আবুল কালাম ওই উপজেলার দাওকাঠী গ্রামের হোসেন আলী খানের ছেলে।

বাকেরগঞ্জ থানার ওসি মো. আলাউদ্দিন বলেন, গত শনিবার বিকেলে মাস্ক না পড়ে আবুল কালাম নামে এক ব্যক্তি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগে প্রবেশ করে। এসময় কর্তব্যরত চিকিৎসক ওই ব্যক্তিকে মাস্ক পরতে অনুরোধ করেন। এতে ভ্রুক্ষেপ না করে ওই ব্যক্তি তার শিশু সন্তান ডায়রিয়ায় আক্রান্ত দাবি করে তাকে ক্যানোলা পড়াতে চিকিৎসকের সাথে জবরদস্তি করেন। কিন্তু চিকিৎসক তাকে আবারও মাস্ক পরতে বলেন। এতে ক্ষিপ্ত হয় কালাম।

তিনি আরও বলেন, এসময় কালাম ওই চিকিৎসকে অকথ্য ভাষায় গালাগাল করেন এবং ধাক্কা দেন। এতে তিনি পড়ে গিয়ে হাটুতে ব্যাথা পান। চিকিৎসক পুলিশকে ফোন দেয়ার চেষ্টা করলে বাধা দেয় কালাম। এক পর্যায়ে চিকিৎসকের মোবাইলটি কেড়ে নেয়ার চেস্টা করে কালাম। পরে অন্যান্য স্বাস্থ্যকর্মীরা এগিয়ে এলে তাদের সামনেই প্রকাশ্যে ওই চিকিৎসককে প্রাণনাশের হুমকি দেয় কালাম।

ওসি মো. আলাউদ্দিন জানান, এ ঘটনায় সরকারি কাজে বাঁধা ও হুমকির ঘটনায় সোমবার বিকেলে থানায় মামলা করেন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক ডা. মো. মনিরুজ্জামান। মামলা দায়েরের পরপরই অভিযুক্ত ছাত্রলীগ নেতা আবুল কালাম খানকে গ্রেফতার করে পুলিশ। মঙ্গলবাল (২৭ এপ্রিল) সকালে আসামিকে আদালতে সোপর্দ করা হবে।

কোন মন্তব্য নেই