কুমিল্লায় পূজা মন্ডপে কোরআন অবমাননা, বিক্ষোভ ভাঙচুর

0
.

কুমিল্লা শহরের একটি পূজামণ্ডপে দেবীর পায়ের নীচ থেকে পবিত্র ‘কোরআন শরীফ উদ্ধারের ঘটনাকে কেন্দ্র করে স্থানীয় ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের মধ্য চরম উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়েছে।

বুধবার সকাল ১০টার দিকে কুমিল্লা শহরের নানুয়ারদীঘি এলাকার একটি পূজামণ্ডপের মূর্তির পায়ে কোরআন রাখার খবর ছড়িয়ে পড়ার পর পুলিশ গিয়ে তা উদ্ধার করে।

কোরআন অবমাননাকারীদের শাস্তির দাবীতে এ বিক্ষোভ চলছে সাধারণ মানুষের। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করছে।

তবে কে বা কারা পবিত্র কোরআন শরীফ দেবীর পায়ের নিচে বা পূজা মন্ডপে রাখলো সেটা খুঁজার চেষ্টা করছে। ইতোমধ্যে সেখানকার পূজা উদযাপন কমিটির অভিযোগ করা হয়েছে তাদের কয়েকটি পুজা মন্ডপে হামলা করেছে দুস্কৃতকারীরা।

পূজা উদযাপন কমিটির সম্পাদক নির্মল পাল জানান, কোরআন অবমাননার কারণে কয়েকটি পূজামণ্ডপে হামলা হয়েছে

তিনি বলেন শহরের নানুয়ারদীঘি এলাকার একটি পূজামণ্ডপের প্রতিমায় কোরআন রাখার খবর ছড়িয়ে পড়ার পর পুলিশ গিয়ে তা উদ্ধার করে এবং এরপর পরই একদল ব্যক্তি বেশ কিছু পূজামণ্ডপে হামলার চেষ্টা চালায়। কয়েকটি মণ্ডপে হামলার চেষ্টা হয়েছে কিন্তু পুলিশের বাধায় ভেতরে ঢুকতে না পারলেও গেইট বা সামনের স্থাপনা ভাংচুর করেছে,” বলছিলেন তিনি।

কুমিল্লা জেলা পুলিশ সুপার ফারুক আহমেদ বলেছেন তারা এখন পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করছেন।”আমরা পেট্রল দিচ্ছি। আগে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করি। তবে কয়টি মণ্ডপে হামলার চেষ্টা হয়েছে এ মূহুর্তে বলতে পারছি না।

কোন মন্তব্য নেই