আজ থেকে চট্টগ্রামেও বস্তিবাসীদের টিকাদান কার্যক্রম শুরু

0
.

ঢাকায় বস্তিবাসীদের করোনার টিকা প্রদান কার্যক্রম চালুর পর এবার চট্টগ্রামেও বস্তিবাসীদের টিকাদান কার্যক্রম শুরু হতে যাচ্ছে। প্রথম ধাপে খুলশী থানাধীন ঝাউতলা ছিন্নমূল বস্তির ২ হাজার বাসিন্দাকে টিকা দেয়ার কথা জানিয়েছে চট্টগ্রাম জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়। পরে পর্যায়ত্রমে নগরীর সকল বস্তিবাসীদের টিকার আওতায় আনা হবে। একই সাথে চট্টগ্রামের তৃতীয় লিঙ্গের ব্যাক্তিদেরও টিকা প্রদানের সিদ্ধান্ত হয়েছে।

প্রাথমিকভাবে রেজিস্ট্রেশন ছাড়াই আজ রবিবার থেকে বস্তিতে এ টিকা দেয়ার কার্যক্রম শুরু হচ্ছে। চলবে আগামী বৃহস্পতিবার পর্যন্ত।

চট্টগ্রাম সিভিল সার্জন অফিস সুত্রে জানাগেছে, আজ রবিবার, মঙ্গলবার, বুধবার ও বৃহস্পতিবার চার দিনে ২ হাজার বস্তিবাসীকে অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা প্রদান করা হবে। প্রতিদিন দুপুর ২টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত টিকাদান কার্যক্রম চলবে। টিকা প্রদানের জন্য ৩ সদস্যের একটি টিমও গঠন করা হয়েছে।

চট্টগ্রাম জেলার সিভিল সার্জন ডা. ইলিয়াস হোসেন জানান, ২১, ২৩ এবং ২৫ নভেম্বর নগরীর ঝাউতলায় ছিন্নমূল বস্তিতে এবং ২২ নভেম্বর সিভিল সার্জন কার্যালয়ের সম্মেলন করে তৃতীয় লিঙ্গের ব্যাক্তিদের মধ্যে টিকা কার্যক্রম চালানো হবে।

তিনি বলেন, প্রাথমিকভাবে বস্তি এলাকার জন্য প্রায় ২ হাজার এবং তৃতীয় লিঙ্গের ব্যাক্তিদের জন্য ৩০০ ডোজ অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা বরাদ্দ রাখা হয়েছে। টিকা নিতে আগ্রহীদের উপস্থিতির ওপর নির্ভর করে টিকা ডোজ সংখ্যা বাড়ানো বা কমানো হবে।

উল্লেখ্য, ঢাকায় জন্ম নিবন্ধন বা জাতীয় পরিচয় পত্র না থাকলেও, বস্তিবাসীদের তালিকা করে সবাইকেই টিকার আওতায় আনার কাজ শুরু করে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। সিটি করপোরেশনের ব্যবস্থাপনায় গত মঙ্গলবার (১৬ নভেম্বর) থেকে ঢাকার কড়াইল বস্তিতে ১৮ বছর বয়সের বেশি সবাইকে টিকা দেওয়ার কার্যক্রম শুরু হয়। বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর (বিবিএস) সর্বশেষ বস্তিশুমারির ২০১৪ সালের তথ্য অনুযায়ী, দেশে মোট বস্তির মধ্যে ১৬ শতাংশ বা ২ হাজার ২১৬টি চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন এলাকায়। এসব বস্তিতে মোট ১ লাখ ২৮ হাজার পরিবার বসবাস করে। প্রতিটি পরিবার বা খানার গড় সদস্য সংখ্যা ৩ দশমিক ৭৩।

কোন মন্তব্য নেই