প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করতে চান মাহি

0
.

চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহির সঙ্গে ফোনালাপ ফাঁসের জেরে পদ হারিয়েছেন সদ্য সাবেক তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান। এদিকে বর্তমানে পবিত্র ওমরাহ পালনে সৌদি আরব আছেন নায়িকা মাহি। সেখান থেকেই এ বিষয়ে ফেইসবুক লাইভে এসে তিনি জানালেন, দেশে ফিরেই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে ৩০ সেকেন্ডের জন্য হলেও সাক্ষাৎ করতে চান তিনি।

মঙ্গলবার বিকেলে মাহিয়া মাহি তার ব্যক্তিগত ফেসবুক থেকে জানান, “ওমরাহ থেকে ফিরেই আমার প্রথম এবং একমাত্র চাওয়া আমি আমাদের সবার অভিভাবক, আমাদের মমতাময়ী মা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে ৩০ সেকেন্ডের জন্য হলেও দেখা করতে চাই। অনেক কিছু বলার আছে। এই মনোবাসনা নিয়েই আমি মক্কা ত্যাগ করবো। আমার বিশ্বাস এই চাওয়া ব্যর্থ হবে না।”

এরআগে সোমবার রাতে মুরাদ হাসানের সঙ্গে ফোন রেকর্ড ফাঁস নিয়ে মুখ খুলেছিলেন তিনি। ভিডিও বার্তায় ‘পরিস্থিতির শিকার হয়েছেন’ বলেও দাবি করেন এই নায়িকা।

এসময় ভিডিওতে মাহি বলেন, “আমার আসলে সেদিন বলার কোনো ভাষা ছিল না। সেজন্য আমি প্রতিবাদ করিনি। আমার মনে হয়েছে, আমার পাশ কাটিয়ে যাওয়া উচিত। আমি চুপ থেকেছি, পাশ কাটিয়ে গিয়েছি।”

মাহি ভিডিও বার্তায় আরও দাবি করেন, সদ্য পদত্যাগ করা প্রতিমন্ত্রী মুরাদ হাসানের সঙ্গে দুই বছর আগে তার ফোনালাপ হয়েছিল।

তিনি বলেন, “অডিওটা নিয়ে সেদিনও ভীষণ বিব্রত ছিলাম। নিজের আত্মসম্মানবোধে কতটুকু আঘাত লেগেছে সেটা শুধু আমি জানি, আর আমার আল্লাহ জানে। আজকেও আমি ভীষণভাবে বিব্রত। আরও একবার নিজের কাছে নিজে তো ছোট হয়েছি, দেশবাসীর কাছে আরও একবার ছোট হলাম। আপনারা নিজে থেকে চিন্তা করে দেখবেন, এই ভাষার প্রত্যুত্তর আমার আসলে কী দেওয়া উচিৎ ছিল।”

মাহি আরো বলেন, “আল্লাহ সাক্ষী, আমার কোনো দোষ ছিল না। আমি জাস্ট একটা পরিস্থিতির শিকার ছিলাম।”

এদিকে মঙ্গলবার তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের সদ্য পদত্যাগ করা প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসানের সঙ্গে ফোনালাপ ফাঁস হওয়ার জেরে চলচ্চিত্র নায়িকা মাহিয়া মাহিকে জিজ্ঞাসাবাদ করবে বলে জানিয়েছে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

এদিন ডিবির যুগ্ম কমিশনার হারুন অর রশিদ বলেন, “ডা. মুরাদ হাসানের সঙ্গে ফোনালাপ ফাঁস হওয়ার জেরে নায়িকা মাহিয়া মাহিকে আমরা জিজ্ঞাসাবাদ করবো। তিনি বিদেশে থাকায় তাকে এ বিষয়ে এখনও জিজ্ঞাসাবাদ করা যায়নি।”

কোন মন্তব্য নেই