বিধিনিষেধ না মানলে লকডাউন দিতে বাধ্য হবে সরকার

0
.

যে হারে করোনা সংক্রমণ বাড়ছে তাতে সরকারের বিধিনিষেধ না মানলে দেশের পরিস্থিতি ভয়াবহ হবে, ফলে সরকার লকডাউন দিতে বাধ্য হবে বলে মন্তব্য করেছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

শনিবার সকালে মানিকগঞ্জ ২৫০ শয্যা জেলা হাসপাতালে ডায়ালাইসিস ইউনিট ও সিটি স্ক্যান মেশিন উদ্বোধন শেষে স্বাস্থ্যমন্ত্রী একথা বলেন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেন, সরকার ঘোষিত স্বাস্থ্যবিধির ১১ দফা না মানলে দেশের ক্ষতি হবে। আমাদের নিজের জন্য, পরিবারের জন্য, দেশের জন্য স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে। ১১ দফা স্বাস্থ্যবিধি মেনে চললে আমাদের লকডাউনের দিকে যেতে হবে না। লকডাউন দেশের ক্ষতি, মানুষের ক্ষতি।

বানিজ্যমেলাসহ অনেকস্থানেই যথাযথভাবে স্বাস্থ্যবিধি মানা হচ্ছে না বলে উদ্বেগ প্রকাশ করেন তিনি বলেন, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে বাধ্য হয়ে লকডাউনে যেতে হবে, তবে তা দেশের অর্থনীতির জন্য ক্ষতিকর।

মন্ত্রী আরো বলেন, করোনা সংক্রমণ থেকে বাঁচতে মাস্ক পরার বিকল্প নেই। বিশ্বজুড়ে ওমিক্রন বৃদ্ধি পাচ্ছে। একদিন আগেও সারাবিশ্বে ৩২ লাখ মানুষ আক্রান্ত হয়েছে এবং ৭ হাজার মানুষ মৃত্যুবরণ করেছে। তাদের অর্থনীতির অবস্থা নাজুক হয়ে পড়ছে যা আমরা চাই না।

জাহিদ মালেক বলেন, ১ কোটি ২০ লাখ শিক্ষার্থীদের মধ্যে আমরা ৭০ লাখ শিক্ষার্থীদের টিকা দিয়েছি। আশা করা যায়, এই মাসের মধ্যে সকল শিক্ষার্থীকে টিকা দেয়া যাবে। টিকার কোনো অভাব হবে না। যারা এখনো টিকা নেননি তারা সকলেই টিকা নিয়ে নেবেন। করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পাচ্ছে- এটা ভালো লক্ষণ না।

প্রতিটি জেলা হাসপাতালে সিটি স্ক্যান মেশিন ও দশ বেডের ডায়ালাইসিস ইউনিট স্থাপন করা হবে বলেও জানান তিনি।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক আহমেদুল কবির, জেলা প্রশাসক মুহাম্মদ আব্দুল লতিফ, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ গোলাম আজাদ খান, মানিকগঞ্জ ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. আরশাদ উল্লাহ, সিভিল সার্জন ডা. মোয়াজ্জেম হোসেন খান, কর্নেল মালেক মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডা. জাকির হোসেন প্রমুখ।

কোন মন্তব্য নেই