বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে ১০০ নারীর সঙ্গে প্রতারণা!

0
.

বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে শতাধিক নারীর সঙ্গে প্রতারণা করেছে ৩৫ বছর বয়সী এক ব্যক্তি। হাতিয়ে নিয়েছে লাখ লাখ টাকা। ইতোমধ্যে অভিযুক্ত ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ভারতীয় পুলিশ শুক্রবার (১৩ মে) এই তথ্য জানিয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ফারহান তাসীর খান নামে অভিযুক্ত ব্যক্তি বর্তমানে উড়িষ্যার কিওনঝর জেলার বাসিন্দা। গত মার্চে অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউট অব মেডিকেল সাইন্সের (এআইআইএমএস) কর্মরত এক নারী চিকিৎসকের অভিযোগের ভিত্তিতে মধ্য দিল্লির পাহাড়গঞ্জ থেকে ফারহানকে গ্রেফতার করা হয়।

অভিযোগে ওই নারী জানান,তাসীর খানের সঙ্গে একটি বিয়ের ওয়েব সাইটে প্রথম কথা হয়, সেখানে খান নিজেকে অবিবাহিত এবং অনাথ হিসেবে পরিচয় দেন। তাসীর খান তাকে বলেন, তিনি ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে পড়েছেন, এমবিএ করেছেন এবং ব্যবসা করতেন।

দেশটির পুলিশের এক সিনিয়র কর্মকর্তা বলেন, বিয়ের অজুহাতে এবং ব্যবসা প্রসার করতে হবে এই দাবিতে তাসীর নারী চিকিৎসকের কাছে ১৫ লাখ টাকা নিয়েছেন বলে অভিযোগ করেছেন।

দেশটির ডেপুটি পুলিশ কমিশনার বেনিতা মেরি বলেন, ‘তদন্তের সময় পুলিশ খুঁজে পান, তাসীর খান বিয়ের সাইটে অনেক আইডি খুলেছিলেন এবং উত্তর প্রদেশ, বিহার, পশ্চিমবঙ্গ, গুজরাট, দিল্লি, মুম্বাই, উড়িষ্যা, কর্নাটক ছাড়াও অন্যান্য রাজ্যের নারীদের সঙ্গে বন্ধুত্ব পাতান।’

তিনি বলেন, ‘তাসীরকে কলকাতা থেকে ট্র্যাক করা হয়েছিল এবং অবশেষে বৃহস্পতিবার পাহাড়গঞ্জের একটি হোটেল থেকে গ্রেপ্তার করা হয়।

পুলিশের পক্ষ থেকে আরও বলা হয়েছে, তাসীর নারীদের প্রভাবিত করার জন্য একটি ভিভিআইপি রেজিস্ট্রেশন নম্বরসহ একটি উচ্চমানের গাড়ি দেখাতেন এবং দাবি করতেন তিনি এটির মালিক। তবে বাস্তবে সেটি ছিল তার এক আত্মীয়র গাড়ি।

বেনিতা মেরি বলেন, তাসীর এক শহর থেকে আরেক শহরে যেতেন এবং নারীদের সঙ্গে ভিডিওকলে যোগাযোগ করতেন এবং ভান ধরতেন তিনি ধনী। তিনি নারীদের বলতেন তার বার্ষিক আয় ৩০ থেকে ৪০ লাখ টাকা।

তবে বাস্তবে তাসীর বিবাহিত। তিন বছরের একটি মেয়ে আছে এছাড়া বাবা ও এক বোন রয়েছে।

কোন মন্তব্য নেই