পুলিশের কব্জি কেটে নেয়া সেই কবির গুলিবিদ্ধ অবস্থায় গ্রেপ্তার

0
এই সেই পাষন্ড কবির যে এক কোপে পুলিশের কব্জি বিচ্ছিন্ন করেছে।

চট্টগ্রামের লোহাগাড়ায় পুলিশী অভিযানে আসামির  ধারালো দায়ের কোপে কনেস্টেবল জনি খানের কব্জি বিচ্ছিন্ন করার ঘটনায় দায়ের করা মামলার মূল আসামি কবিরকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় গ্রেফতার করেছে র‍্যাব।

আজ বৃহস্পতিবার রাতে তাকে লোহাগড়ার পাহাড়ি এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এসময় কবিরের এক সহযোগীকেও গ্রেফতার করা হয়।

র‍্যাব-৭ এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) মো. নুরুল আবছার গণমাধ্যমকে বলেন, সাম্প্রতিক সময়ে কর্তব্যরত পুলিশ সদস্যের কবজি বিচ্ছিন্নের ঘটনায় দায়ের হওয়া মামলার মূল আসামি কবিরকে র‍্যাবের অভিযানে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় সহযোগীসহ লোহাগড়ার পাহাড়ি এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ বিষয়ে পরে বিস্তারিত জানানো হবে।

গ্রেপ্তারের জন্য অভিযানে গেলে গোলাগুলিতে কবির গুলিবিদ্ধ হন বলে জানিয়েছেন র‍্যাব-৭ এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) নুরুল আবছার।

.

তিনি বলেন, ‘লোহাগড়ার গহীন পাহাড়ে র‍্যাবের অভিযানে গুলিবিদ্ধ হন কবির আহমদ। পরে তাকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় গ্রেপ্তার করা হয়। এই বিষয়ে বিস্তারিত পরে জানানো হবে।’

এর আগে গত রবিবার রাতে বান্দরবন সীমান্তবর্তী এলাকা থেকে কবিরের স্ত্রী রানু বেগমকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

গত রবিবার সকালে চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলায় অভিযানে গিয়ে আসামির দায়ের কোপে হাতের কবজি বিচ্ছিন্ন হয় কনস্টেবল জনি খানের। একই ঘটনায় মামলার বাদীসহ আরও এক কনস্টেবল আহত হন।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার পদুয়া এলাকার বাসিন্দা মো. আবুল হোসেন গত ২৪ মার্চ অনধিকার প্রবেশ ও মারামারির অভিযোগে একটি মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় পদুয়ার লালারখিল এলাকার মৃত আলী হোসেনের ছেলে কবির আহমদকে (৪০) ২ নম্বর আসামি করা হয়। রবিবার সকাল ১০টার দিকে লোহাগাড়ার থানার এসআই ভক্ত চন্দ্র দত্তের নেতৃত্বে থানা পুলিশের একটি টিম আসামি কবির আহমদকে গ্রেফতারের জন্য তার বাড়িতে অভিযান চালালে আসামী কবিরের নেতৃত্বে পুলিশের উপর হামলা চালায়।।

কোন মন্তব্য নেই