জিইসিতে ছাত্রলীগের হামলায় স্বেচ্ছাসেবক দলের ৮ নেতা আহত

0
.

চট্টগ্রাম মহানগরীর জিইসি এলাকায় প্রকাশ্যে রাস্তার উপর কয়েকজন স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতার উপর হামলা ছাত্রলীগের সন্ত্রাসীরা।

হামলায় নগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক বেলায়েত হোসেন বুলুসহ দলের ৮জন নেতা আহত হয়েছে।

বুধবার রাত ৯টার দিকে জিইসির মোড়ে বাসমতি রেস্টুরেন্টে এ ঘটনা ঘটে। ছাত্রলীগ সন্ত্রাসীরা হোটেল থেকে তাদের রাস্তায় ধরে এনে নির্মম ভাবে কিল, ঘুষি, লাথি মেরেছে।

.

হামলায় বেলায়েত হোসেন বুলু ছাড়াও নগর যুগ্ম সম্পাদক জমির উদ্দিন নাহিদ, খুলশী থানা স্বেচ্ছাসেবক দলের রায়হান আলম ও বাবুসহ ৮ জনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

জানা গেছে, দলীয় নেতাকর্মীদের নিয়ে নগরীর জিইসি মোড়ের একটি রেস্টুরেন্টে নাস্তা করতে বসেছিল চট্টগ্রাম মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের একটি টিম। এসময় অতর্কিতভাবে ছাত্রলীগ সন্ত্রাসীরা হামলা চালায়।

নগর স্বেচ্ছাসেবক দলের পক্ষ থেকে এ ঘটনাকে ছাত্রলীগের পরিকল্পিত হামরা বলে দাবি করা হয়েছে। যদিও হামলাকারীদের ব্যাপারে সঠিক কোনো তথ্য দিতে পারেনি নগর স্বেচ্ছাসেবক দল।

আহত নগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক বেলায়েত হোসেন বুলু বলেন, আমরা বাসমতি রেস্টুরেন্টে বসেছিলাম। অতর্কিতভাবে ছাত্রলীগের ১৫/২০ জন এসে আমাদের উপর হামলা করে। আমার মাথায় লেগেছে, আমাদের যুগ্ম সম্পাদক জমির উদ্দিন নাহিদ, খুলশী থানা স্বেচ্ছাসেবক দলের রায়হান আলম ও বাবুর মাথায় আঘাতে ফেটে গেছে। আমাদের ৮জনকে তারা আহত করেছে। আমরা কোনো মতে সেখান থেকে বেরিয়ে আসি।

.

এ বিষয়ে জানতে চাইলে খুলশী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সন্তোষ কুমার চাকমা বলেন, হামলার খবর পেয়ে আমরা সেখানে গিয়েছিলাম। কিন্তু সেখানে কাউকে পাওয়া যায়নি। পরবর্তিতে কেউ অভিযোগ নিয়ে আসেনি। এখন অভিযোগ নিয়ে আসলে আমরা ব্যবস্থা নিব।

এদিকে রাতেই ট্রিটমেন্ট হাসপাতালে ভর্তি হওয়া নেতাকর্মীদের দেখতে যান নগর বিএনপির আহবায়কডা. শাহাদাত হোসেন ও সদস্য সচিব আবুল হাসেম বক্কর, নগর যুবদল সভাপতি মোশারফ হোসেন দিপ্তীসহ অন্যান্য নেতারা। তারা বিনা উস্কানীতে স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতাদের উপর ছাত্রলীগ সন্ত্রাসীদের নির্মম হামলার তীব্র নিন্দা জানান।

কোন মন্তব্য নেই