জীবনযাত্রার ব্যয় বেড়েছে ৬.৪৭ শতাংশ

0
.

সদ্য বিদায়ী ২০১৬ সালে চাল, ডাল, রসুন, চিনি, লবণসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় বেশ কিছু পণ্যের দাম বেড়েছে। সব মিলিয়ে ঢাকায় জীবনযাত্রার খরচ বেড়েছে ৬ দশমিক ৪৭ শতাংশ। আর পণ্য ও সেবার মূল্য বৃদ্ধি পেয়েছে ৫ দশমিক ৮১ শতাংশ। গতকাল রবিবার কনজ্যুমারস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের : (ক্যাব) দ্রব্যমূল্য ও জীবনযাত্রার ব্যয়-বিষয়ক বার্ষিক প্রতিবেদনে এসব তথ্য : উঠে এসেছে।

২০১৫ সালে জীবনযাত্রার ব্যয় বৃদ্ধির হার ছিল ৬ দশমিক ৩৮ শতাংশ। আর ওই বছর পণ্য ও সেবার মূল্য বৃদ্ধি পায় ৪ দশমিক ৮১ শতাংশ। অর্থাৎ, ২০১৬ সালে জীবনযাত্রার ব্যয় ২০১৫ সালের চেয়ে দশমিক শূন্য ৯ পয়েন্ট এবং পণ্য ও সেবার মূল্য ১ পয়েন্ট বেড়েছে। ঢাকা শহরের ১৫টি বাজার ও বিভিন্ন সেবা-সার্ভিসের মধ্য থেকে ১১৪টি খাদ্যপণ্য, ২২টি নিত্যব্যবহার্য সামগ্রী এবং ১৪টি সেবা খাতের তথ্য-উপাত্ত পর্যালোচনা করে এই হিসাবে করেছে ক্যাব। তবে এ হিসাবের মধ্যে শিক্ষা, চিকিৎসা ও প্রকৃতি যাতায়াত ব্যয় অন্তর্ভুক্ত করা হয়নি। ক্যাব প্রতিবছর এই হিসাব প্রকাশ করে।

২০১৫ সালের তুলনায় ২০১৬ সালে সব ধরনের চাল, ডাল, রসুন, চিনি, লবণ, চায়ের পাতা, গরুর দুধ, মাংস, দেশি থান কাপড়, শাড়ি গেঞ্জি, তোয়ালে ও গামছার দাম বেড়েছে। : ক্যাব বলছে, সারা বছর স্থিতিশীল থাকলেও বছরের শেষ প্রান্তিকে পাইকারি ও খুচরা বাজারে সব ধরনের চালের দাম ছিল ঊর্ধ্বমুখী। তবে নিম্ন আয়ের মানুষের ব্যবহৃত মোটা চালের দাম বেড়েছে সবচেয়ে বেশি। ক্যাবের হিসাবে ২০১৫ সালের চেয়ে সবচেয়ে দাম বেড়েছে আমদানি করা রসুনের দাম ৭২ শতাংশ। চিনির দাম ৪৬, লবণের দাম ৩৭, গরুর দুধের দাম ৯ এবং মাংসের দাম ৬ শতাংশ বেড়েছে।

কোন মন্তব্য নেই