১০৫ মেট্রিকটন ত্রাণ নিয়ে শ্রীলংকার পথে বানৌজা বঙ্গবন্ধু

0
BNS-BANGABANDHU
বাংলাদেশ নৌ বাহিনীর যুদ্ধ জাহাজ বঙ্গবন্ধু

ঘূর্ণিঝড় জলোচ্ছাসে আক্রান্ত শ্রীলংকার জন্য বাংলাদেশ সরকারের ১০৫ মেট্রিকটন ত্রাণ নিয়ে রওনা দিয়েছেন বাংলাদেশ নৌবাহিনীর জাহাজ ‘বিএনএস বঙ্গবন্ধু’।

মঙ্গলবার এ বিপুল পরিমাণ ত্রাণসামগ্রী নিয়ে জাহাজটি চট্টগ্রামের নৌ জেটি ত্যাগ করেছে।

মানবিক বিপর্যয়ের কবলে পড়া শ্রীলংকার মানুষের পাশে দাঁড়াতে সরকার নৌবাহিনীকে জরুরি ভিত্তিতে ত্রাণসামগ্রী নিয়ে জাহাজ পাঠানোর নির্দেশ দেয় বলে জানাগেছে।

এ উপলক্ষে দুপুরে অায়োজিত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, নৌবাহিনীর চট্টগ্রাম নৌ অঞ্চলের কমাণ্ডার রিয়ার অ্যাডমিরাল আখতার হাবীব, সেনাবাহিনীর ২৪ পদাতিক ডিভিশনের জিওসি মেজর জেনারেল মোহাম্মদ কবির তালুকদার, বিমানবাহিনীর এয়ার কমডোর এ এইচ এম ফজলুল হক, সশস্ত্র বাহিনীর সামরিক ও বেসামরিক দপ্তরের মহাপরিচালক কমডোর নাজমুল হাসান এবং বাংলাদেশে নিযুক্ত শ্রীলংকার হাইকমিশনার ইয়াসুজা গুণাসেকারা।

নৌবাহিনীর এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, নৌবাহিনীর জাহাজ বঙ্গবন্ধু প্রায় এক হাজার চারশ নটিক্যাল মাইল পথ অতিক্রম করে ৩ জুন শ্রীলংকায় পৌঁছবে।  ত্রাণ সামগ্রী খালাসের জন্য তিনদিন জাহাজটি কলম্বোতে অবস্থান করবে।  ১০ জুন জাহাজটির বাংলাদেশে ফিরে আসার কথা রয়েছে।  তবে প্রয়োজনে জাহাজটির অবস্থানের সময় আরও বাড়তে পারে।

শ্রীলংকায় পাঠানো ত্রাণসামগ্রীর মধ্যে ‍আছে বিশুদ্ধ পানি, ওয়াটার পিউরিফায়ার, ওষুধ, বস্ত্র, তাঁবু এবং জেনারেটর।

গত ১৯ মে ঘূর্ণিঝড় রোয়ানু বাংলাদেশ ও মিয়ানমার উপকূলে আঘাত হানে।  এর প্রভাবে শ্রীলংকায় গত ২৫ বছরের মধ্যে সর্বাধিক বৃষ্টিপাত হয়।  শ্রীলংকার ২৫টি জেলার মধ্যে ১৯টি এখন বন্যাকবলিত হয়ে পড়েছে।  বন্যা এবং ক্রমাগত ভূমিধসের কারণে এর মধ্যে শতাধিক মানুষ প্রাণ হারিয়েছেন।  হাজার হাজার মানুষ তাদের বসতি হারিয়েছেন।  শ্রীলংকার সরকারি হিসেবে এই ক্ষতির পরিমাণ ১৬ হাজার কোটি টাকারও বেশি।

প্রাকৃতিকভাবে সৃষ্ট মানবিক বিপর্যয় মোকাবেলায় শ্রীলংকার সরকার সম্প্রতি আর্ন্তজাতিক সহায়তা আহ্বান করেছে।

আর বন্ধুত্বপূর্ণ উজ্জ্বল পররাষ্ট্রনীতির প্রতিফলন হিসেবে প্রতিবেশি রাষ্ট্র শ্রীলংকার আহ্বানে সাড়া দিয়েছে বাংলাদেশ।

Advertisements

কোন মন্তব্য নেই

একটি মন্তব্য দিন