সুস্বাদু খাবার তৈরী করেই “রন্ধন শিল্পী” খ্যাতি পেয়েছেন কিশোরী তানজিন

1

রান্না শব্দের সাথে আমরা সবাই ভালো ভাবেই পরিচিত। শব্দটি উচ্চারণের মধ্যে মনে এসে যায় সুস্বাদু খাবারের কথা। কিন্তু সব খাবার কি সুস্বাদু হয়। উত্তর অবশ্যই না। খাবার মজাদার আর সুস্বাদু করাও কিন্তু একটা শিল্প। আর যারা এ শিল্প রপ্ত করে সাধনা করে তাদের বলা হয় রন্ধন শিল্পী।

আজ পাঠকের সাথে পরিচয় করিয়ে দিব চট্টগ্রামেই এক কিশোরী রন্ধন শিল্পীর সাথে। তার নাম তানজিন তিপিয়া। যার রান্নার জুড়ি নাই।

কিশোরী রন্ধন তারকা তানজিন তিনি সম্প্রতি এনটিভিতে প্রচারিত চপ স্টিক নুডলস অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন। এবং  পরবর্তীতে তার রেসিপি চট্টগ্রামের  মধ্যে  টপ ৫০ তে সিলেক্ট হয়েছে।তার  তানজিনস বেঙ্গলি কিচেন নামে একটা অনলাইন খাবার ডেলিভারী ব্যবস্থা রয়েছে।

তিপিয়া চট্টগ্রামের একটি অভিজাত, সাহিত্য, সাংস্কৃতিক, রাজনৈতিক,  উচ্চশিক্ষিত ও মুক্তিযুদ্ধ পরিবারে জন্ম গ্রহণ করেন। সেই সুবাদে পরিবারের লোকজনকে একদিকে যেমন দেখেছেন সাহিত্য চর্চা করতে। অন্যদিকে দেখেছেন রাজনীতিতে সমানতালে অংশগ্রহণ করতে। লেখালেখির হাতে খড়ি শিশু বয়স থেকেই নানু কাজী ছাবেরা বেগম চৌধুরীর  উৎসাহে।

.

বাবা  আলহাজ আবু মোহাম্মদ খালেদ  শিক্ষাবিদ, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও সমাজসেবক, সংগঠক। মা আলহাজ কাজী রওশন আখতার ছিলেন রাউজান কলেজ ছাত্র সংগঠনের নেত্রী । (তিনি দৌলত কবির বংশধর)। দাদু আলহাজ আব্দুল কুদ্দুস মাস্টার ছিলেন সুপরিচিত লেখক, কলামিস্ট, শিক্ষক, মুক্তিযোদ্ধা সংগঠক, ব্রিটিশ বিরোধী আন্দোলনের নেতা ও কবি কাজী নজরুল ইসলামের বাল্যবন্ধু।

.

শুধু রান্না নয়, রান্না বিষয়ে লেখালেখিতে তার ভালো হাত রয়েছে। দেশের প্রথম সারির দৈনিক, মাসিক, অনলাইন ও পত্রিকাগুলোতে স্কুল জীবন থেকেই লেখালেখি করে অাসছে তানজিন তিপিয়া।

অধ্যায়ণ করছেন ইংলিশে। লেখালেখির পাশাপাশি ড্রইং এ পারদর্শী সে। ইতোমধ্যে লায়নস ক্লাব সহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান থেকে পুরস্কারেও ভূষিত হয়েছেন। ২০১৫  সালের প্রথম  রান্না বিষয়ক বই ব্যাপক বিক্রির পর “বাংলার রন্ধনশালা” ২০১৭ সালের এবারের বই মেলায় রি প্রিন্ট করে দ্বিতীয় মুদ্রণ করা হয়। প্রকাশ করেছে প্রকাশনা প্রতিষ্ঠান বাঙালি। ২১ এর বই মেলাতে পাওয়া যাচ্ছে  স্টল নাম্বার ৪৭৬। প্রথম প্রকাশক আরিফ নজরুল।দাম রাখা হয়েছে ১৫০ টাকা।

 

প্রথম মন্তব্য