বিদেশি পর্যটক ধর্ষণ মামলার আসামী ৬ বছর পর গ্রেফতার

0
coxsbazar pict 1.6.2016
টেকনাফ উপজেলার হোয়াইক্যং ইউনিয়নে কুদুম গুহা। ইনসেটে ধর্ষক নূরুল আলম। ছবি: শাহীন

কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলার হোয়াইক্যং ইউনিয়নে কুদুম গুহা (একটি প্রাকৃতিক গুহা) দেখতে গিয়ে ২০১০ সালে চাঞ্চল্যকর বিদেশি পর্যটক মিস ক্যারিনা ধর্ষণ মামলার প্রধান আসামী নুরুল আলমকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

বুুধবার দুপুরে টেকনাফের বাহারছড়ার শামলাপুরে অভিযান চালিয়ে দীর্ঘ ৬ বছর পর তাকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয় পুলিশ।

টেকনাফ শামলাপুর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই আবদুল গোফরান জানিয়েছেন, গোপনে প্রাপ্ত খবরের ভিত্তিতে পুলিশ অভিযান চালিয়ে নুরুল আলম প্রকাশ ডাকাত নুরুল আলমকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতার হওয়া নুরুল আলম টেকনাফ বাহারছড়া ইউনিয়নের শামলাপুর ১নং ওয়ার্ডের ইজ্জত আলীর ছেলে ।
ও ২০১০ সালে কুদুম গুহায় বিদেশি পর্যটক মিস ক্যারিনাকে ধর্ষণ মামলার প্রধান আসামী।

উপ-পরিদর্শক আবদুল গোফরান আরও জানান, ডাকাত নুরুল আলমের বিরুদ্ধে ২০০৭ সাল থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত কক্সবাজারের রামু, উখিয়া ও টেকনাফ থানায় বিভিন্ন অপরাধে ১১টি মামলা রয়েছে।

প্রসংগত, টেকনাফ উপজেলার হোয়াইক্যং ইউনিয়নের বাজার থেকে ৪ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিম দিকে এই গুহা অবস্থিত। এটি মূলত বালু ও মাটির তৈরি একটি প্রাকৃতিক গুহা। এই গুহার প্রবেশমুখ প্রায় ১২ ফুট উঁচু। গুহার দেয়ালের গা বেয়ে চুইয়ে চুইয়ে অনবরত পানি ঝরে। এই কারণে সারা বছরই এর প্রবেশমুখ থেকে মধ্যভাগ পর্যন্ত পানি থাকে। প্রবেশ পথে প্রায় হাঁটু পানি থাকে। শুকনো মৌসুমে এর ভিতরে কোমর পানি থাকে।

গুহার ভিতরে ছাদের অংশ বেশ প্রসস্থ কিন্তু এর ভিতর ভাগ এতটাই অন্ধকারাচ্ছন্ন যে, জোরালো আলো ছাড়া এর কিছুই দেখা যায় না। গুহার ভিতরে রয়েছে প্রচুর চামচিকা এবং নানা প্রজাতির বাদুর। এই গুহাটি দেখতে এখনো অনেক দেশি বিদেশী পর্যটক ভিড় জমায়।

Advertisements

কোন মন্তব্য নেই

একটি মন্তব্য দিন