ফাইনালের স্বপ্ন অপূর্ণ থেকে গেল টাইগারদের

1
.

আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির দ্বিতীয় সেমিফাইনালে ভারতের কাছে ৯ উইকেটের বিশাল ব্যাবধানে হেরে ফাইনালে যাওয়া হলো না বাংলাদেশের। বৃহস্পতিবার (১৫ জুন) জয়ের জন্য বাংলাদেশের ছুঁড়ে দেওয়া ২৬৫ রানের সহজ লক্ষ্য তাড়া করে মাত্র এক উইকেট হারিয়ে৫৯ বল হাতে রেখে জয় তুলে নেয় ভারত।

বাংলাদেশের পক্ষে একমাত্র উইকেটটি নিয়েছেন দলপতি মাশরাফি বিন মর্তুজা। ৪৬ রান করা শেখর ধাওয়ানকে ক্যাচ আউট করে সাজঘরে ফেরান তিনি। এছাড়া টাইগারদের আর কোন বোলারই এদিন সুবিধা করতে পারেননি ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের সামনে।
ভারতের পক্ষে সর্বোচ্চ ব্যাক্তিগত ইনিংসটি খেলেছেন ওপেনার রহিত শর্মা। এদিন তিনি তুলে নিয়েছেন তার ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ১১ তম সেঞ্চুরি। দলের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ার আগে রহিত সংগ্রহ করেছেন ১২৯ বলে ১২৩ রান। ইনিংসে তিনি হাঁকিয়েছেন ১৫ চার এবং একটি ছক্কা। এছাড়া দলপতি কোহলি করেছেন হার না মানা ৯৬ রান। ৭৮ বলের ইনিংসটিতে তিনি খেলেছেন ১৩ টি চারের মার।

এর আগে বাংলাদেশ সময় সাড়ে তিনটায় এজবাস্টনে মুখোমুখি হয় বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ভারত ও বাংলাদেশ। ম্যাচে টস হেরে আগে ব্যাটিং করে বাংলাদেশ। নির্ধারত ৫০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ২৬৪ রান তোলে মাশরাফিবাহিনী।

আমন্ত্রণ পেয়ে এদিন ব্যাট করতে নেমে প্রথম ওভারেই ভুবনেশ্বর কুমারের বলে বোল্ড হয়ে ফিরে গেছেন ওপেনার সৌম্য সরকার (০)। এরপর তামিম ইকবাল ও সাব্বির রহমান ঘুরে দাঁড়ানোর ইঙ্গিত দিয়েছিলেন। কিন্তু ইনিংসের সপ্তম ওভারের পঞ্চব বলে ভুবনেশ্বর কুমারের বলে রবীন্দ্র জাদেজার হাতে ধরা পড়েন সাব্বির। তবে তামিম ও মুশফিকুর রহিম দলের হাল ধরেন। এ জুটিতে ১২৩ রান জমা পড়ে দলীয় ভাণ্ডারে। ইনিংসের ২৮তম ওভারের শেষ বলে কেদার যাদবের বলে ব্যক্তিগত ৭০ রানে বোল্ড হন তামিম।

এরপরই দলীয় ১৭৭ রানের সময় জাদেজার বলে ধোনির গ্লাভসবন্দি হয়ে সাজঘরের পথ ধরেন সাকিব। ফেরার আগে তিনি সংগ্রহ করেন ২৩ বলে এক চারের সাহায্যে ১৫ রান। এর কিছু পরেই দলীয় খাতে মাত্র ২ রান যোগ করে সাকিবের পথ ধরেন টাইগারদের নির্ভরতার প্রতিক মুশফিক। ফেরার আগে ৮৫ বলে ৪ চারের সাহায্যে সংগ্রহ করেন ৬১ রান।

উল্লেখ্য, ইংল্যান্ডকে হারিয়ে প্রথম দল হিসেবে এর আগে আসরের ফাইনাল নিশ্চিত করেছে পাকিস্তান। আগামী ১৮ জুন তাদেরই মোকাবেলা করবে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ভারত।

বাংলাদেশ একাদশ : তামিম ইকবাল, সৌম্য সরকার, সাব্বির রহমান, মুশফিকুর রহীম, সাকিব আল হাসান, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মোসাদ্দেক হোসেন, তাসকিন আহমেদ, মাশরাফি মর্তুজা (অধিনায়ক), রুবেল হোসেন ও মোস্তাফিজুর রহমান।
ভারত একাদশ : রোহিত শর্মা, শিখর ধাওয়ান, বিরাট কোহলি (অধিনায়ক), যুবরাজ সিং, মহেন্দ্র সিং ধোনি, কেদার যাদব, হার্দিক পাণ্ডে, বরীন্দ্র জাদেজা, ভুবনেশ্বর কুমার, রবীচন্দন অশ্বিন ও জসপ্রিত বুমরা।

Advertisements

প্রথম মন্তব্য

একটি মন্তব্য দিন