সেহরিতে মজাদার মুড়িঘণ্ট

4
ব্রেকিং নিউজ
  • *উদ্বোধন হল বেনাপোল-ঢাকা ট্রেন বেনাপোল এক্সপ্রেস

                    *উদ্বোধন হল বেনাপোল-ঢাকা ট্রেন বেনাপোল এক্সপ্রেস

                    *উদ্বোধন হল বেনাপোল-ঢাকা ট্রেন বেনাপোল এক্সপ্রেস

.

সেহরিতে গরম ভাতের সঙ্গে মুড়িঘণ্ট হলে খেতে বেশ লাগে। সারাদিনের শক্তির জন্যও সেহরিতে আমিষ রাখা জরুরি। তবে অনেক সময় সেহরিতে অনেকের মুখেই মাছ-মাংস ভালো লাগে না। সেক্ষেত্রে একটু ব্যতিক্রম উপায়ে রান্না করলে মন্দ হয় না। তেমনই একটি রেসিপি মুড়িঘণ্ট। এটি খুব সহজেই আপনি তৈরি করতে পারবেন। রইলো রেসিপি-

রুই মাছের মাথা বড় ১টি, মুগ ডাল ৩০০ গ্রাম, পেঁয়াজ কুচি ১ কাপ, আদা বাটা ও রসুন বাটা ১ টেবিল চামচ করে, ঘি ১ টেবিল চামচ, মরিচ গুঁড়া ২ চা চামচ ও হলুদ গুঁড়া ১ চা চামচ, জিরা গুঁড়া ১ চা চামচ ও গরম মসলা আস্ত ২টি করে, এলাচ ও দারুচিনি ও তেজপাতা ২টি, কাঁচামরিচ আস্ত ৫-৬টি, ধনে পাতা কুচি ২ টেবিল চামচ। এছাড়া, সয়াবিন তেল পরিমাণমতো, লবণ স্বাদ অনুযায়ী এবং পানি পরিমাণমতো।

প্রণালি : প্রথমে মুগ ডাল হালকা ভেজে পানিতে কিছুক্ষণ ভিজিয়ে রেখে ধুয়ে পানি ঝরিয়ে রাখতে হবে। এবার একটি পাতিলে ঘি ও তেল গরম করে তাতে গরম মসলা ও তেজপাতার ফোড়ন দিয়ে পেঁয়াজ হালকা ভেজে তাতে সব বাটা ও গুঁড়া মসলা এবং স্বাদ অনুযায়ী লবণ দিয়ে মসলা ভালো করে কষিয়ে নিতে হবে।

এবার রুই মাছের মুড়ো (মাথা) কেটে টুকরো করে পরিষ্কার করে ধুয়ে নিন। কষানো মসলায় টুকরো করা মাছের মাথা দিয়ে আবার ভালো করে কষিয়ে ভুনাভুনা করে মসলা থেকে মাছের মাথা তুলে নিয়ে ওই মসলায় আগে থেকে ছেড়ে রাখা মুগ ডাল দিয়ে ভালো করে কষিয়ে পরিমাণমতো পানি দিয়ে ঢেকে ডাল রান্না করতে হবে।

মাঝে মধ্যে ডাল নাড়তে হবে, যাতে নিচে লেগে না যায়। ডাল সিদ্ধ হয়ে এলে তাতে মাছের মাথা দিয়ে রান্না করে নিন। মাথা সিদ্ধ হয়ে এলে তা ভেঙে দিয়ে ডালের সঙ্গে মিশিয়ে ধনে পাতা কুচি, আস্ত কাঁচামরিচ ও জিরা গুঁড়া দিয়ে কিছুক্ষণ চুলায় রান্না করে নামিয়ে নিন ।