কাপ্তাই বিদ্যুৎকেন্দ্রে উৎপাদন বাড়ছে

0
.

লেকে পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় কাপ্তাই বিদ্যুৎ কেন্দ্র থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদনও বাড়ানো হয়েছে। গত কয়েকদিন তিনটি জেনারেটর পুরোদমে বিদ্যুৎ উৎপাদনে ছিল। এই ৩টি জেনারেটর থেকে ১৩৫ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন হচ্ছে। বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ৪ ও ৫নং জেনারেটর যান্ত্রিকত্রশুটির কারণে দীর্ঘদিন বন্ধ ছিল। কিন্তু বর্তমানে লেকের অতিরিক্ত পানি অযথা ফেলে দেয়া হচ্ছে। এই পানি অযথা ফেলে না দিয়ে বিদ্যুৎ উৎপাদনের কাজে লাগানোর পরিকল্পনা নেয় কর্তৃপক্ষ। সেজন্য ৪ নম্বর জেনারেটরের ত্রুটি সারিয়ে দ্রুত সচল করে বিদ্যুৎ উৎপাদনের কাজে লাগানোর জন্য উদ্যোগ নেয় কর্তৃপক্ষ।

ইতিমধ্যে ৪ নম্বর জেনারেটরের ত্রশুটি সারিয়ে তোলার কাজ প্রায় সম্পন্ন করা হয়েছে।’ আজ সোমবার থেকে ৪ নম্বর জেনারেটর বিদ্যুৎ উৎপাদনে যাবে বলে জানান প্রকৌশলী আবদুর রহমান। এছাড়া এই জেনারেটর সচল হলে এটি থেকে ৫০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপন্ন হবে বলেও জানান এই প্রকৌশলী।

উল্লেখ্য, টানা তিনদিন ধরে কাপ্তাই লেক থেকে পানি ছাড়া অব্যাহত রয়েছে। তবে পানি ছাড়ার মাত্রা প্রতিনিয়ত বাড়ানো হচ্ছে। সর্বশেষ রবিবার বিকাল ৫টা থেকে পানি ছাড়ার পরিমাণ দুই ফুট করা হয়। এর আগে দেড় ফুট করে পানি ছাড়া হয়েছিল। গত ১৬ জুন রাত ৮টায় প্রথম দফায় ৬ ইঞ্চি করে পানি ছাড়া শুরু হয়। এর ১৩ ঘণ্টা পর পানি ছাড়ার মাত্রা ১২ ইঞ্চি করা হয়। পরবর্তীতে ১৮ ইঞ্চি এবং সর্বশেষ ২৪ ইঞ্চি করে পানি ছাড়া হচ্ছে বলে জানা গেছে।

কর্ণফুলী পানি বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ব্যবস্থাপক প্রকৌশলী মো. আবদুর রহমান বলেন, ‘বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ১৬টি গেইট দিয়ে বর্তমানে ২ ফুট হারে পানি ছাড়া হচ্ছে। বৃষ্টি বেড়ে যাওয়ায় লেকে পানি আবারো বৃদ্ধি পেয়েছে। সে জন্য স্পীলের ১৬টি গেইট ২ ফুট করে খুলে দেয়া হয়। বাড়তি পানি কর্ণফুলী নদীতে ছেড়ে দেয়া হয়।’

লেক থেকে পানি ছাড়া অব্যাহত থাকবে বলে উল্লেখ করে ব্যবস্থাপক বলেন, ‘রুলকার্ভ (পানির পরিমাপ) অনুযায়ী কাপ্তাই লেকে ১৮ জুন পানি থাকার কথা ৮০.৪৯ ফুট মীন সী লেভেল (এমএসএল)। কিন্তু লেকে এখন পানি রয়েছে ১০৪.৬৬ ফুট এমএসএল।

Advertisements

কোন মন্তব্য নেই

একটি মন্তব্য দিন