বন্দরে সিঙ্গাপুরগামী কন্টেইনার থেকে কেডিএস লজিস্টিক শ্রমিক উদ্ধার

0
সীতাকুণ্ডের ঘোড়ামারায় অবস্থিত কেডিএস লজিস্টিক কন্টেইনার।

চট্টগ্রাম বন্দরে সিঙ্গাপুরগামী একটি পণ্যবাহি কন্টেইনার জাহাজে উঠানোর আগ মুহুর্তে সে কন্টেইনারের ভেতর থেকে জীবিত এক শ্রমিককে উদ্ধার করেছে বন্দরের নিরাপত্তা কর্মীরা। উদ্ধার করা সে শ্রমিকের নাম বাবুল ত্রিপুরা (৩৫)। তিনি সীতাকুণ্ডে সোনাইছড়ির পাক্কা মসজিদ এলাকায় অবস্থিত কেডিএস কন্টেইনার ডিপুর শ্রমিক বলে জানা গেছে। কন্টেইনারের ভেতরে আটকা পড়ে অসুস্থ্য এ শ্রমিককে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

চট্টগ্রাম বন্দরের পরিচালক (নিরাপত্তা) লে. কর্নেল আব্দুল গাফফার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, আজ সোমবার সকালে রফতানিমুখী কনটেইনার বেসরকারী ডিপু থেকে বন্দরের ৪ নং গেইট দিয়ে প্রবেশের সময় একটি কন্টেইনারের ভেতরে মানুষের চিৎকারের শব্দ শুনতে পেয়ে নিরাপত্তা কর্মীরা তা খুলে একজনকে উদ্ধার করেছে। অসুস্থ্য ওই ব্যক্তিকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

তিনি বলেন, লোকটি কন্টেইনারের ভীতরে কিভাবে ডুকেছে তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

জানাগেছে, চট্টগ্রাম মেট্টোপলিটস চেম্বারের সভাপতি ও কেডিএস গ্রুপের চেয়ারম্যান শিল্পপতি খলিলুর রহমানের মালিকানাধীন সীতাকু-ের সোনাইছড়ি ইউনিয়নের পাক্কা মসজিদ এলাকায় অবস্থিত কেডিএস লজিষ্ট্রিক এন্ড কন্টেইনার ডিপু থেকে সোমবার ভোর ৪টার দিকে ট্রলিতে কন্টেইনারগুলো চট্টগ্রাম বন্দরে নেয়া হয়। এর মধ্যে ৪০ ফুটের একটি কনটেইনার চট্টগ্রাম বন্দরের ৪ নং গেইট দিয়ে ঢুকানোর সময় ভেতর থেকে হঠাৎ মানুষের চিৎকার শুনে নিরাপত্তা কর্মীরা কন্টেইনারটি খুলে দেখেন ভেতরে একজন লোক পড়ে আছে।

তাকে উদ্ধার করে প্রথমে বন্দর হাসপাতাল এবং পরে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। কন্টেইনারে ভেতরে আটকা পড়ে আলো বাতাসবিহীন এ লোক সুস্থ্য হয়ে জানায়, তার নাম বাবুল ত্রিপুরা তার বাড়ি খাগড়াছড়ির মাটিরাঙা উপজেলায়। গত ৩ মাস ধরে তিনি কেডিএস গ্রুপের কন্টেইনার ইয়ার্ডে শ্রমিক হিসেবে কাজ করছেন।

তিনি আরো জানান, গতকাল রাতে কন্টেনারে মালামাল ঢুনানোর সময় রাত ৩টার দিকে ক্লান্ত হয়ে ঘুমিয়ে পড়েন। পড়ে কন্টেইনার গাড়িতে তোলার সময় তার ঘুম ভেঙে গেলে তিনি চিৎকার করেও কারো সাড়া পান নি বলে জানান।

বন্দর কর্তৃপক্ষ জানায়, বন্দরে অবস্থান করা সিঙ্গাপুরগামী চার্লি জাহাজে ওঠার কথা ছিল কন্টেইনারটি। জাহাজাটি আজ বিকলে বন্দর ছেড়ে যাবে।

এদিকে এ ব্যাপারে জানতে চাইলে কেডিএস গ্রুপের চেয়ারম্যান খলিলুর রহমানের ভাগিনা এবং ইয়ার্ডের ঠিকাদার আবুল কাসেম প্রথমে ব্যাপারটি অস্বিকার করলেও পরে জানান, কন্টেইনারে শ্রমিক আটকা পড়ার বিষয়টি তিনি শুনেছেন। তবে যে শ্রমিক আটকা পড়েছে তিনি ইয়ার্ডের মিলন মাঝির অধিনেই কাজ করেন বলে জানান। আবুল কাসেম দাবী করেন, এটি নিছক দুর্ঘটনা। বেখেয়ালে ওই শ্রমিক কন্টেইনারে ঘুমিয়ে পড়ার কারণে এ দুর্ঘটনা ঘটেছে।

কোন মন্তব্য নেই