জেলেদের জালে আটকা পড়েছে নিখোঁজ চুয়েট ছাত্র নাকিবের লাশ

6
.

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে বেড়াতে গিয়ে সাগরে ডুবে নিখোঁজ চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (চুয়েট) ছাত্র নাকিব মোহাম্মদ খাব্বাবের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

আজ বুধবার দুপুর দেড়টার দিকে ঘটনাস্থল সীতাকুণ্ডের মুরাদপুর ইউনিয়নের গুলিয়াখালী সাগরে জেলেদের জালে আটকা পড়ে একটি লাশ। পরে তা উদ্ধার করে উপকূলে আনা হলে তা নিখোঁজ নাকিব মোহাম্মদ খাব্বাবের লাশ বলে সনাক্ত করা হয়।

ঘটস্থলে থাকা চুয়েটের উপ ছাত্র কল্যাণ পরিচালক ড. জিএম সাদিকুল ইসলাম পাঠক ডট নিউজকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এ ব্যাপারে নাকিব মোহাম্মদ খাব্বাবের ছোট ভাই খাত্তাবের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন আমি এখন ঢাকায় আছি তবে ঘটনাস্থল থেকে আমাকে ফোন করে জানিয়েছে জেলেদের জালে আমার ভাইয়ের লাশ পাওয়া গেছে। আমরা চট্টগ্রামে আসছি।

উল্লেখ্য, গতকাল মঙ্গলবার (১৫ আগস্ট) বিকেলে সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ১০ জন শিক্ষার্থীর একটি দল মুরাদপুর সাগর উপকূলে বেড়াতে যান। বিকালে তারা সাগর পাড়ে যান। তখন নাকিবসহ তিনজন শিক্ষার্থী পানিতে নামেন। তাঁদের পাশে তরুণীদের আরেকটি দলও পানিতে নামেন। সেই দলের দুজন তরুণী পানির স্রোতের ঘূর্ণিতে পড়ে ডুবে যেতে থাকলে নকীবসহ তিন শিক্ষার্থী তাঁদের উদ্ধার করতে সাগরে নামেন এবং তারা নিজেরাই সাতাঁর না জানায় স্রোতের টানে পানিতে ডুবে যেতে থাকেন। এ অবস্থায় ওপরে থাকা শিক্ষার্থীরা চিৎকার করলে পাশে থাকা জেলেদের একটি নৌকা এগিয়ে আসে। এক পর্যায়ে ডুবতে থাকা দুই তরুণীসহ অন্যদের উদ্ধার করতে পারলেও নাকিব পানিতে তলিয়ে যান।

দুর্ঘটনার পর ফায়ার সার্ভিস ও স্থানীয় ডুবরীরা কয়েক ঘন্টা তল্লাশী চালিয়েও খাব্বাবের কোন সন্ধান পায়নি।

ফায়ার সার্ভিস চট্টগ্রাম বিভাগের উপ সহকারী পরিচালক মো. জসিম উদ্দিন জানান, ফায়ার সার্ভিসের দুটি টিম (আগ্রাবাদ ও সীতাকুণ্ড স্টেশন) রাত সাড়ে ৮টায় উদ্ধার কাজ স্থগিত করে। আজ বুধবার সকাল ৭টা থেকে আবারও উদ্ধার কাজ শুরু হয়। নৌবাহিনী, কোস্টগার্ড ও ফায়ার সার্ভিসের ডুবরী টিম এ উদ্ধার কাজে অংশ নেয়।

এ অবস্থায় বেলা দেড়টার দিকে ডুবে যাওয়া স্থান থেকে বেশ কিছু দুরে জেলেদের জালে আটক পড়ে একটি মৃত্যু দেহ। পরে তা উপরে তুলে আনার পর উপস্থিত চুয়েট শিক্ষার্খী, শিক্ষক ও নিখোঁজ ছাত্রের স্বজনরা লাশটি নাকিব মোহাম্মদ খাব্বাবের লাশ বলে সনাক্ত করেছে।

Advertisements