কলকাতায় বাংলাদেশ বই মেলায় পাওয়া যাচ্ছে শাম্মী তুলতুলের ৪টি বই

0
.

শাম্মী তুলতুল একজন ঔপন্যাসিক, গল্পকার ও শিশু সাহিত্যিক। ছোটবেলায় পড়ালেখায় অনেক ফাঁকিবাজ ছিল। টিচার এলে নানা অজুহাতে তাড়ানোর বাহানা করত। দিন রাত ক্লাসের বই নিয়ে পরে থাকার ইচ্ছে কোন কালেই তার ছিলনা। অতি ভাল রেজাল্ট না করলেও ভাল রেজাল্ট করে সে আজ দেশ সেরা কলেজ চট্টগ্রাম কলেজের ছাত্রী। পড়ছে ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগে।

তার জন্ম চট্টগ্রাম শহরেই। তার পরিবারটাও অনেক মজার। একটা সাহিত্য, সাংস্কৃতিক, রাজনৈতিক, অভিজাত ও মুক্তিযুদ্ধ পরিবারে তার বেড়ে ওঠা। পরিবারে সবাইকে একদিকে যেমন দেখেছে রাজনীতিতে অংশ গ্রহণ করতে, অন্যদিকে দেখেছে সমান তালে সাহিত্য ও সংস্কৃতি অঙ্গনে অংশগ্রহণ করতে। তাই লেখালেখি তার রক্তে। মুক্তিযুদ্ধ তার চেতনায়।

ছোটবেলা থেকেই তার লেখালেখির হাতেখড়ি। সেই থেকে একযুগের চাইতেও বেশি একযোগে দেশের বিখ্যাত আঞ্চলিক, জাতীয় দৈনিক, মাসিক ও দেশের বাইরের ভিবিন্ন পত্র পত্রিকায় লিখে শীর্ষে আছেন।

এই প্রজন্মের বেস্ট সেলার লেখিকার চারটি বই বর্তমানে কলকাতায় ৭ম বাংলাদেশ বই মেলায় পাওয়া যাচ্ছে। কলকাতায় ৯ দিনব্যাপী ৭ম বাংলাদেশ বইমেলা শুরু হয়েছে ১৫ নভেম্বর থেকে। এ মেলা শেষ হবে ২৩ নভেম্বর পর্যন্ত। কলকাতার রবীন্দ্র সদনের কাছে ঐতিহ্যবাহী মোহরকুঞ্জ প্রাঙ্গণে আয়োজিত এ মেলায় বাংলাদেশে প্রকাশিত বিভিন্ন বই প্রদর্শিত হচ্ছে।

মেলায় শাম্মী তুলতুলের বই গুলো হলো, চোরাবালরি বাসন্দিা, পদ্মবু, গণতি মামার চামচ রহস্য, নানটু ঝানটুর বক্স রহস্য।

তাছাড়া শাম্মী তুলতুল সাহিত্যে অবদানের জন্য অনেক জাতীয় পুরস্কারেও ভূষিত হন। বর্তমানে তিনি পাঠাগার আন্দোলনের ব্রান্ড এম্বাসেডর হিসেবে কাজ করছেন।

তুলতুল মনে করে প্রতিটা মানুষ তার নিজ নিজ মেধা নিয়ে জন্মে,প্রত্যেকেরই নিজস্ব গুণ রয়েছে।কেউ কারো জায়গা নিতে পারেনা, কেউ কারো মতো হতে পারেনা।এ ক্ষেত্রে নিজের উপর আত্মবিশ্বাস থাকা এবং নিজের পরামর্শ নিজেকে গ্রহণ করা একান্ত জরুরী।আর অভিভাবকদের উচিৎ দিন রাত সন্তানের মাথায় পড়ালেখার ভূত চাপিয়ে না দিয়ে তাদের প্রতিভা বিকাশের দিকেও নজর দেয়া।

লেখালেখি ও পড়াশোনার পাশাপাশি সে চট্টগ্রাম টেলিভিশনে নিয়মিত আবৃত্তি ও চট্টগ্রাম বেতারে অনুষ্ঠান গ্রন্থনা করে থাকে। তুলতুল তার প্রতিটি লেখায় কোন না কোন ম্যাসেজ রাখে। তাই তার ইচ্ছে লেখালেখির মাধ্যমে পুরো প্রিয় বাংলাদেশ আর নিজেকে বিশ্বের দরবারে তুলে ধরা।

কোন মন্তব্য নেই

একটি মন্তব্য দিন