গুম-খুন হচ্ছে সরকারের মদদে: খালেদা জিয়া

0

বিএনপি-জামায়াত গুপ্ত হত্যা করছে—প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এই অভিযোগের জবাবে বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া বলেছেন, বিএনপি চোরা পথে ক্ষমতায় যেতে চায় না। তিনি অভিযোগ করেন, প্রতিনিয়ত গুম-খুন হচ্ছে সরকারের মদদে।

আজ রোববার মে দিবসের সমাবেশে খালেদা জিয়া এই অভিযোগ করেন। বিএনপির সহযোগী সংগঠন শ্রমিক দল রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ওই সমাবেশের আয়োজন করে। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন খালেদা জিয়া।
খালেদা জিয়া বলেন, প্রতিনিয়ত খুন হচ্ছে। কিন্তু কাউকে ধরা যাচ্ছে না। কারণ খুনিরা আওয়ামী লীগের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট। এ জন্য তাদের ধরা যায় না।
প্রধানমন্ত্রীর অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে খালেদা জিয়া বলেন, ‘হাসিনা বলে বিএনপি ক্ষমতায় না আসতে পেরে নাকি এখন আমরা গুপ্ত হত্যার পথ বেছে নিয়েছি। আরে ক্ষমতায় আসার সুযোগটা কোথায়? নির্বাচন কি হয়েছে দেশে? আমারত নির্বাচন ছাড়া ক্ষমতায় যেতে চাই না। চোরা পথে ক্ষমতায় যেতে চাই না। আপনি গেছেন চোরা পথে।’
ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে ব্যাপক লুটপাটের অভিযোগ এনে বিএনপির চেয়ারপারসন বলেন, গত সাত বছরে আওয়ামী লীগ ত্রিশ হাজার কোটি টাকা বিদেশে পাচার করেছে। বহুল আলোচিত পানামা পেপারস-এ যাতে কারো নাম না আসে সে জন্য ‘ধরা-ধারি’ চলছে বলেও দাবি করেন খালেদা জিয়া।
সাংবাদিক শফিক রেহমান ও মাহমুদুর রহমানের মুক্তি দাবি করে খালেদা জিয়া দাবি করেন, প্রধানমন্ত্রীর ছেলে সজীব ওয়াজেদ জয় ৩০০ মিলিয়ন ডলার পাচার করেছে, এ সংক্রান্ত তথ্য শফিক রেহমান সাংবাদিক হিসেবে সংগ্রহ করেছেন। এ জন্য তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। শেখ হাসিনা যদি জনগণের প্রধানমন্ত্রী হয়ে থাকেন তবে ৩০০ মিলিয়ন ডলারের বিষয়ে জয়কেও ‘ভেতরে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ’ করা দরকার।
খালেদা জিয়া বলেন, ‘বিএনপি শেষ হয়ে যায় নাই। শ্রমিক সমাবেশে বিএনপি রাজপথেই আছে, জনগণের সঙ্গেই আছে। অন্যরা যাদের জনগণের সঙ্গে সম্পর্ক নেই, জনগণকে ভয় পায়, তারা কাচের ঘরে এয়ার কন্ডিশনে বসে মে দিবস পালন করছে।’
সেনা সমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকার জিয়া-পরিবারকে ধ্বংস করে দিয়েছে অভিযোগ করে আবেগ আপ্লুত খালেদা জিয়া বলেন, ‘আমার মা নেই, বাবা নেই, ভাই নেই, বোন নেই, ছেলে নেই। আমার একমাত্র ভরসা আপনারা, জনগণ। আপনারা আমার ছেলে, আপনারা ভাই, বোন।’
নিজের গ্রেপ্তারের আশঙ্কা প্রকাশ করে সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘কারাগারে নিলে নেবে। কিন্তু আপনারা আমার ভাই বোন, বন্ধু, আপনারা আছেন কি না, থাকবেন কি না? আপনারা থাকবেন।’
মে দিবসকে অধিকার আদায়ের দিবস অবিহিত করে খালেদা জিয়া বলেন, সত্য ও ন্যায় প্রতিষ্ঠিত হবে। গণতন্ত্র ফিরে আসবে। গ্রামে গঞ্জে উন্নয়ন হবে।
নির্দলীয় সরকারের অধীনে জাতীয় নির্বাচন দেওয়ার দাবি জানিয়ে খালেদা জিয়া বলেন, আওয়ামী লীগ মানুষকে বিশ্বাস করে না। সে জন্য তারা ক্ষমতায় থেকে নির্বাচন করতে চায়। কিন্তু সে নির্বাচন কেমন হয় তা ইউনিয়ন পরিষদ, উপজেলা নির্বাচনে সবাই দেখেছে।
শ্রমিক দলের সভাপতি আনোয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে অন্যদের মধ্যে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন, মওদুদ আহমদ, জমির উদ্দীন সরকার, আব্দুল মঈন খান, মির্জা আব্বাস, নজরুল ইসলাম খান প্রমুখ বক্তব্য দেন।

Advertisements

কোন মন্তব্য নেই

একটি মন্তব্য দিন