জঙ্গি সন্দেহে নিখোঁজ ১০ যুবক ভারতে!

0
Bangladesh-government-search-suspected-terrorist
বাংলাদেশের নিখোঁজ হওয়া ১০ যুবক ভারতে থাকতে পারে এমন ধারণা সেদেশের গোয়েন্দাদের ।

ঢাকার গুলশানে হামলার পর নিখোঁজ হওয়া ১০ যুবক ভারতে থাকতে পারে বলে গোয়েন্দাদের বরাতে ভারতীয় গণমাধ্যমে বলা হয়েছে।

তাদের খবরে বলা হয়েছে, গুলশানের হোলি আর্টিজ়ান রেস্তরাঁয় জঙ্গি হামলার পর বেশ কয়েকটা দিন কেটে গেছে। আর এই ঘটনার তদন্তে নেমে উঠে এসেছে বাংলাদেশের বেশকিছু যুবকের নিখোঁজ থাকার তথ্য। ওই নিখোঁজ যুবকদের মধ্যে ১০ জনের ছবিও প্রকাশ করেছে বাংলাদেশের নিরাপত্তা বাহিনী। আর তারা ভারতেই রয়েছে বলে অনুমান গোয়েন্দাদের। তাই তাদের খোঁজে ভারত ও বাংলাদেশ সীমান্ত সংলগ্ন মহদিপুর, হবিবপুর, হিলি, চাংরাবান্ধাসহ বেশ কয়েকটি জায়গায় নিয়মিত তল্লাশি চালানো হচ্ছে।

গুলশানে হামলার পর যে ১০ জন বাংলাদেশি যুবকের নিখোঁজ থাকার খবর পাওয়া গেছে তারা হল ঢাকার তেজগাঁয়ের মোহম্মদ বাসারুজ্জামান, জুনায়েদ খান, চাঁপাই নবাবগঞ্জের নজবুল্লা আনসারি, ঢাকার আসরাফ মহম্মদ ইসলাম, সিলেটের তামিল আহমেদ চৌধুরী, ঢাকার ইব্রাহিম হাসান খান, লক্ষ্মীপুরের এটিএম তাজউদ্দিন, ধানমণ্ডির ওবায়েদুর রহিম, সিলেটের সাইফুল্লা ওজাকি ও জুন্নুন শিকদার। বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে এই সব নিখোঁজ যুবকদের পাসপোর্টের নম্বরসহ বিভিন্ন তথ্য ভারতীয় গোয়েন্দাদের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে।

আর এই তথ্য পাওয়ার পরই ভারত ও বাংলাদেশ সীমান্ত জুড়ে কঠোর নজরদারি শুরু করেছে BSF ও BGB। ইতিমধ্যেই BSF জওয়ানরা সীমান্ত এলাকার গ্রামগুলোতে পুলিশকে সঙ্গে নিয়ে খোঁজখবর নিতেও শুরু করেছেন। কোনও অপরিচিত ব্যক্তিকে দেখতে পেলেই পুলিশ বা BSF-কে জানাতে বলা হয়েছে।

যদিও এই বিষয় নিয়ে সংবাদমাধ্যমের সামনে মুখ খুলতে রাজি হননি মালদা জেলার পুলিশ সুপার প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়।

তিনি বলেন, এটি অনেক বড় বিষয়। এই নিয়ে আমার কিছু বলা উচিত হবে না। তবে গুলশানে হামলার পর জেলার সীমান্তবর্তী গ্রামগুলোতে কড়া নজর রাখা হচ্ছে। জেলার সব হোটেল, লজ, যাত্রী প্রতীক্ষালয়, বাসস্ট্যান্ড, রেলস্টেশন সহ ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়কেও নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে।

Advertisements

কোন মন্তব্য নেই

একটি মন্তব্য দিন