আগুনে পুড়ে দ্বগ্ধ শিখা বাঁচতে চায়

1
.

সীতাকুণ্ড (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি:

আগুনে পুড়ে যাওয়া মেধাবী ছাত্রী শিখা’র সাহায্যর্থে মায়ের আকুতি সীতাকুণ্ড প্রতিনিধিঃ আগুনে শরীরের ৭০ ভাগ অংশ পুড়ে গেছে সীতাকুণ্ড বালিকা বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণীর ছাত্রী শিখা দে’র।

১৬ ফেব্রুয়ারি শুক্রবার রাত ৮ টার দিকে নিজ ঘরের চুলা থেকে ভয়াবহ এ অগ্নিকান্ডের শিকার হয় সীতাকুণ্ডের ভোলাগিরি আশ্রম এলাকার বাসিন্দা কিশোরি মেয়েটি। একমাত্র মা ছাড়া আর কেউ নেই তার। বর্তমানে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ছয় তলায় ৩৬ নাম্বার ওয়ার্ডে ত্রিশ নাম্বার বেডে তীব্র যন্ত্রনায় ছটপট করছে শিখা দে।

অন্যের বাড়ি কাজ করে শত কষ্টে মেয়েটিকে লেখাপড়া করিয়ে উচ্চ শিক্ষিত করার স্বপ্ন দেখেছিলেন মা। কিন্তু আকষ্মিক আগুনের লেলিহান শিখা তার আদরের ‘শিখা’কে নিয়ে দেখা স্বপ্ন ভেঙ্গে গুড়িয়ে দিল। হাসপাতালের বেডে মেয়ের পাশে এসব বলে বিলাপ করছিল আগুনে পুড়ে যাওয়া শিখা দে’র মা। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন দ্রুত উন্নত চিকিৎসার ব্যবস্থা না করলে মেয়েটিকে বাঁচানো অসম্ভব হয়ে দাঁড়াবে।

দিশেহারা মা একমাত্র মেয়েকে বাঁচাতে সমাজের বিত্তবানদের কাছে সাহায্যের আকুল আবেদন জানিয়েছেন।

এদিকে শিখা দে’কে বাঁচাতে সাহায্যের আবেদন করেছেন তার সহপাঠি ও বিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষকরা। তাদের ভাষায় বিত্তবানদের ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র সাহায্য স্কুল ছাত্রীকে বাঁচানোর একমাত্র অবলম্বন হতে পারে। না হয় ক্রমান্বয়ে মৃত্যুর দিকে ধাবিত হবে এই ছোট্ট স্কুল ছাত্রী শিখা দে।

সাহায্য পাঠাতে যোগাযোগের ঠিকানাঃ 01819035856 (রুগির আত্মীয়) 01728692513 (রুগির আত্মীয়)।