চট্টগ্রামে শুক্রবার থেকে শুরু হচ্ছে ৩ দিনের ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলা

0
.

আগামীকাল থেকে চট্টগ্রামে শুরু হচ্ছে ৩ দিনের ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলা ২০১৮ (২৩-২৫ ফেব্রুয়ারী)।

নগরীর এম এ আজিজ স্টেডিয়ামের সামনে আউটার স্টেডিয়ামে (জিমনেশিয়াম সংলগ্ন) তিন দিন ব্যাপী ‘’ অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। প্রতিদিন সকাল ১০টা হতে রাত ১০টা পর্যন্ত মেলা চলবে।

মেলা উপলক্ষে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসকের উদ্যোগে বৃহস্পতিবার দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

এতে বলা হয়, সরকারের রূপকল্প ২০২১ বাস্তবায়নে বাংলাদেশের অবস্থান তুলে ধরার জন্য চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের তত্ত্বাবধানে এবং একসেস টু ইনফরমেশন (এটুআই প্রোগ্রাম) এর আওতায় সারাদেশে এ মেলার আয়োজন করা হচ্ছে।

আগামীকাল মেলা উদ্বাধন করবেন চট্টগ্রাম বিভাগের সুযোগ্য বিভাগীয় কমিশনার জনাব মো. আবদুল মান্নান, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন চট্টগ্রাম রেঞ্জ এর ডিআইজি ড. এস এম মনির-উজ-জামান, সিএমপি কমিশনার মোঃ ইকবাল বাহার, চট্টগ্রাম এবং জেলা পুলিশ সুপার নুরে আলম মিনা। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন জেলা প্রশাসক মোঃ জিল্লুর রহমান চৌধুরী।

মেলায় সেমিনার, প্যানেল আলোচনা, কুইজ প্রতিযোগিতা, ডকুমেন্টারী ও চলচ্চিত্র প্রদর্শনী, ই-সেবা প্রদর্শন, ডিজিটাল কন্টেন্ট, ড্রোন প্রদর্শন, ইনোভেশন ল্যাবে অনলাইনভিত্তিক বিভিন্ন প্রতিযোগিতা, ফ্রি কুপন ও র‌্যাফেল ড্র, ফ্রিল্যান্সারদের সমাবেশ, ডিজিটাল সেন্টার উদ্যোক্তা সম্মেলন এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানসহ বিভিন্ন আয়োজন থাকছে।

আয়োজিত মেলায় তথ্যপ্রযুক্তির বৈপ্লবিক ছোঁয়ায় প্রতিনিয়ত ঘটে যাওয়া বৈশ্বিক পরিবর্তন জনসম্মুখে উপস্থাপন, ডিজিটাল বাংলাদেশের সফলতা তুলে ধরা এবং সরকারি-বেসরকারি নাগরিক সেবা প্রদানের IT ব্যবহার সংক্রান্ত সার্বিক বিষয়াদি তুলে ধরা হবে। তিন দিন ব্যাপী এই মেলা অনুষ্ঠান বিশ্ববিদ্যালয়সহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের প্রতিদিন হাজার হাজার ছাত্র/ছাত্রী, অভিভাবকের সমাবেশ হবে এবং সরকারিভাবে বিদেশে গমনেচ্ছু লোকদের রেজিস্টেশন কার্যক্রম চলবে।

এবারের মেলায় সর্বমোট ১২৫টি স্টল থাকবে। তন্মধ্যে সরকারী প্রতিষ্ঠান ৪৩, ব্যাংক ২৫, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ২৭টি, আইটি প্রতিষ্ঠান ১০টি, ফুড এন্ড কপি কর্ণার ১২টি এবং এনজিও এবং অন্যান্য প্রতিষ্ঠান ০৮টি।

মেলায় বিভ্ন্নি ক্যাটাগরিতে (১) শ্রেষ্ঠ ডিজিটাল সেন্টার- ২ টি, (২) শ্র্রেষ্ঠ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান -২টি, (৩) শ্রেষ্ঠ দক্ষতা উন্নয়ন ও কর্মসংস্থান প্রতিষ্ঠান-২টি, (৪) শ্রেষ্ঠ জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে নাগরিক সেবায় উদ্ভাবন বাস্তবায়ন-১টি, (৫) শ্রেষ্ঠ উপজেলা নির্বাহী অফিসার- ১টি, (৬) শ্রেষ্ঠ তরুণ উদ্ভাবক- ৩টি , (৬) শ্রেষ্ঠ স্টল-১টি , (৭) শ্রেষ্ঠ ই-সেবা প্রদানকারী দপ্তর-১টি (৮) শ্রেষ্ঠ পোর্টালের দপ্তর (জেলা-১টি ও উপজেলা-১টি)সহ মোট ১৫ টি পুরষ্কার প্রদানের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

এছাড়া “ মুক্তিযুদ্ধ ও বঙ্গবন্ধুর গল্প বিষয়ক কুইজ প্রতিযোগিতার পুরষ্কার-১২টি এবং “আমার চোখে ডিজিটাল বাংলাদেশ” প্রতিযোগিতার -১২টি, আইসিটি বিষয়ক কুইজ প্রতিযোগিতার পুরষ্কার-১৫টি, ফ্রি কুপন ও র‌্যাফেল ড্র এর পুরষ্কার-৯ টি ও সেল্ফি কনটেস্ট এর পুরষ্কার ৫টিসহ সর্বমোট ৬৮ টি পুরষ্কার এবং অংশগ্রহনকারী সকল স্টল, অতিথিদের শুভেচ্ছা পুরষ্কার ও সনদ প্রদান করা হবে।

২৫ ফেব্রুয়ারী ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলার সমাপনী অনুষ্ঠানে বিভিন্ন বিষয়ে শ্রেষ্ঠত্ব অর্জনকারী ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে পুরস্কৃত করা হবে।

মেলাতে বাংলাদেশ টেলিভিশন, বাংলাদেশ বেতার, প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়া, ক্যাবল টিভি এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক প্রচারের ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।
মেলার সমন্বয়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন- জনাব মোঃ হাবিবুর রহমান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি), চট্টগ্রাম।

কোন মন্তব্য নেই