বোয়ালখালীতে এইচএসসি পরীক্ষা কেন্দ্রের ২০গজের মধ্যে হীরক জয়ন্তী!

0
.

বোয়ালখালী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধিঃ

আগামীকাল ২ এপ্রিল সারাদেশের মতো একযোগে এইচএসসি পরীক্ষা বোয়ালখালীর উপজেলার তিনটি কেন্দ্রে শুরু হবে। নির্বিঘ্নে এ পরীক্ষা সম্পন্ন করতে কেন্দ্রের ২শত গজে ১৪৪ধারা জারি করেছে প্রশাসন।

বোয়ালখালী উপজেলার কধুরখীল জলিল আম্বিয়া কলেজ, স্যার আশুতোষ সরকারি কলেজ ও সিরাজুল ইসলাম ডিগ্রি কলেজে এ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এ লক্ষ্যে কেন্দ্রগুলোর শ্রেণিকার্যক্রম বন্ধ ঘোষণা করেছে কলেজ কর্তৃপক্ষ।

গত ৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ সালের এইচএসসি পরীক্ষার সময় সূচি প্রকাশ করে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। সূচি অনুযায়ী আগামী ২ এপিল সোমবার বাংলা ১ম পত্র ও ৩ এপ্রিল মঙ্গলবার বাংলা ২য় পত্রের পরীক্ষা সকাল ১০ থেকে বেলা ১টা পর্যন্ত চলবে।

উপজেলা সদরের সিরাজুল ইসলাম ডিগ্রি কলেজ পরীক্ষা কেন্দ্রের ২০গজের মধ্যে গোমদণ্ডী পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের হীরক জয়ন্তী উপলক্ষে আগামী ৩ এপ্রিল সকাল ১০ থেকে দিনব্যাপী ব্যাপক অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে প্রাক্তণ শিক্ষার্থীরা। এতে ১৯৫৮-১৮ ব্যাচের শিক্ষার্থীরা উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে। এ উপলক্ষে হীরক জয়ন্তী উৎসব, পুরস্কার বিতরণ, মা সমাবেশ ও র‌্যালী অনুষ্ঠিত হবে বলে জানিয়েছেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. মঈনুল আবেদীন নাজিম।

এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থাকবেন চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার মো. আবদুল মান্নান। অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করবেন দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোছলেম উদ্দিন আহমদ। বিশেষ অতিথি হিসেবে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক মো. ইলিয়াছ হোসাইন, উপজেলা চেয়ারম্যান আতাউল হক, উপজেলা নির্বাহী অফিসার আছিয়া খাতুন, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ড চট্টগ্রামের বিদ্যালয় পরিদর্শক (ভারপ্রাপ্ত) আবুল মনছুর ভূঁঞা, সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. ফোরকান এলাহী অনুপম ও জেলা শিক্ষা অফিসার মুহাম্মদ জাহাঙ্গীর উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে।

উপজেলা নিবার্হী অফিসার আছিয়া খাতুন বলেন, এবারের এইচএসসি পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে।  কেন্দ্রের ২শত গজের মধ্যে ১৪৪ধারা জারি করা হয়েছে।

সিরাজুল ইসলাম ডিগ্রী কলেজ কেন্দ্রের ২০গজের ব্যবধানে হীরক জয়ন্তী অনুষ্ঠানের ব্যাপারে তিনি বলেন, বিদ্যালয়ের অভ্যন্তরে অনুষ্ঠান হবে। এ ছাড়া পরীক্ষা কেন্দ্রে যাতে বিঘ্ন না হয় সে ব্যাপারে সর্তক দৃষ্টি রাখা হবে।

স্যার আশুতোষ সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ সাগর কান্তি দে বলেন, আমার কলেজের বিজ্ঞান ও ব্যবসা বিভাগের পরীক্ষার্থীরা সিরাজুল ইসলাম ডিগ্রী কলেজে ও জলিল আম্বিয়া কলেজ কেন্দ্রে মানবিক বিভাগের পরীক্ষার্থী অংশ গ্রহণ করবে।

স্যার আশুতোষ সরকারি কলেজ এইচএসসি পরীক্ষা কেন্দ্র হওয়ায় সকল শ্রেণি কার্যক্রম বন্ধ রাখা হয়েছে বলে জানান তিনি।

বাংলা ২য় পত্রের পরীক্ষা দিন কেন্দ্রের ২০গজের মধ্যে একটি বিদ্যালয়ের হীরক জয়ন্তী উদযাপন প্রসঙ্গে তিনি জানান, বন্ধের দিন হীরক জয়ন্তী উদযাপন করা যায়। এইসএসসি পরীক্ষা সময় সূচি প্রায় একমাস আগে প্রকাশ করেছে মন্ত্রণালয়। এ বিষয়ে সংশ্লিষ্টদের ভেবে দেখা উচিত বলে জানান তিনি।

সিরাজুল ইসলাম ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ সমীর কান্তি দাশ বলেন, পরীক্ষা কেন্দ্রে হওয়ায় সকল প্রকার শ্রেণি কার্যক্রম বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। উপজেলার তিনটি কেন্দ্রে এবার এইচএসসি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের অভিভাবকরা জানান, একই সড়কে সিরাজুল ইসলাম ডিগ্রি কলেজের কয়েক হাত দূরত্বে রয়েছে গোমদণ্ডী পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়। বাংলা ২য় পত্রের পরীক্ষার দিন হীরক জয়ন্তী উদযাপনে আগত অতিথিদের গাড়ি বহর সড়কে যানজট সৃষ্টি করে জনভোগান্তি কারণ হতে পারে। বিপাকে পড়তে পারে পরীক্ষার্থীরা। এছাড়া এ অনুষ্ঠানে কয়েক হাজার লোকের সমাগম হবে। উচ্চ শব্দে মাইকিং, র‌্যালী বিঘ্ন সৃষ্টি করবে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন।

কোন মন্তব্য নেই