বাঁশখালীতে র‌্যাবের সাথে বন্দুকযুদ্ধে শিশু ধর্ষক নিহত

1
.

চট্টগ্রামের বাঁশখালী্উপজেলায় র‌্যাবের সাথে বন্দুক যুদ্ধে আব্দুল হাকিম মিন্টুর (৩০) নামে এক যুবক নিহত হয়েছে।  আব্দুল হাকিম শিশু ধর্ষণ মামলার আসামী ছিল।  

ঘটনাস্থল থেকে র‌্যাব  একটি ওয়ান-শুটার গান, ৫ রাউন্ড গুলি ও ২টি খালি খোসা উদ্ধার করেছে
 
আজ মঙ্গলবার (২৪ এপ্রিল) ভোরে বাঁশখালি-পেকুয়া থানার সীমান্তবর্তী এলাকায় এ ঘটনা ঘটেছে বলে র‌্যাব  জানায়।
 
র‌্যাব-৭ এর চট্টগ্রামের সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) মিমতানুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন- র‌্যাব-৭, চট্টগ্রাম গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে জানতে পারে যে, উক্ত মামলার আসামী ধর্ষক আব্দুল হাকিম প্রকাশ মিন্টু ও তার সহযোগী সন্ত্রাসীরা চট্টগ্রাম জেলার বাঁশখালী থানাধীন বাঁশখালী ও পেকুয়া থানাধীন সীমান্তবর্তী এলাকায় অবস্থান করছে।  উক্ত তথ্যের ভিত্তিতে আজ ২৪ এপ্রিল ভোরে র‌্যাবের একটি দল অভিযান পরিচালনা করলে র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে সন্ত্রাসীরা র‌্যাবকে লক্ষ করে এলোপাথারিভাবে গুলি বর্ষন শুরু করে।  আত্মরক্ষা ও সরকারী জানমাল রক্ষার্থে র‌্যাবও পাল্টা গুলি বর্ষণ করে। গুলি বিনিময়ের এক পর্যায়ে সন্ত্রাসীরা পিছু হটে পালিয়ে যায়। এ সময় ঘটনাস্থলে একজনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পাওয়া যায়। তাৎক্ষণিকভাবে আহত ব্যক্তিকে পেকুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।
 
পরে ঘটনাস্থ থেকে একটি ওয়ান-শুটার গান, ৫ রাউন্ড গুলি ও ২টি খালি খোসা উদ্ধার করেছে।  নিহত যুবককে স্থানীয়রা আব্দুল হাকিম বলে চিহ্নিত করে। তার বিরুদ্ধে বাঁশখালী থানায় শিশু ধর্ষন সহ বিভিন্ন মামলা রয়েছে।  
উল্লেখ্য বাঁশখালী উপজেলার শেখেরখীল ইউনিয়নের টেকপাড়া গ্রামে গত ১৮ এপ্রিল সন্ধ্যায় দশ বছর বয়সী তৃতীয় শ্রেণির এক শিশুকে ধানক্ষেতে ঘাস কাটতে গেলে আব্দুল হাকিম ধর্ষণ করে।  এ ঘটনায় মিন্টুর বিরুদ্ধে ২১ এপ্রিল বাঁশখালী থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করা হয়।  এতে অভিযোগ অনা হয়, গত ১৮ এপ্রিল মাদ্রাসা থেকে এসে বিকালে ওই ছাত্রী বাড়ির পাশের জমিতে ঘাস কাটতে যায়। এসময় একা পেয়ে আব্দুল হাকিম জোর করে মেয়েটিকে ধান ক্ষেতে নিয়ে ধর্ষণ করে। পরে মেয়েটির চিৎকার শুনে লোকজন জড়ো হলে ধর্ষক হাকিম পালিয়ে যায়।