সেগুনবাগিচায় গৃহবধূর ঝুলন্ত লাশ, হত্যা না অাত্মহত্যা!

0
.

চট্টগ্রাম মহানগরীর খুলশী থানার সেগুনবাগিচা এলাকায়  রীতা আক্তার (২৬) নামে এক গৃহবধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।  এ ঘটনায় গৃহবধূর স্বামী ও শাশুড়িকে আটক করা হয়েছে। পরিবারের দাবী রীতাকে নির্যাতন করে পরিকল্পিতভাবে হত্য করা হয়েছে।

পুলিশ জানায়, বুধবার (৬ জুন) সকালে খবর পেয়ে নগরীর সেগুনবাগ এলাকার অফিসার্স কলোনির শ্বশুরবাড়ির বাসার বাথরুম থেকে রীক্তা আক্তারের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়। পরে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেলে পাঠানো হয়। রীতা একই এলাকার মো. রিপনের স্ত্রী।

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসাপাতাল পু্লিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই জহিরুল হক পাঠক ডট নিউজকে বলেন, সেগুনবাগিচার অফিসার্স কলোনি থেকে মোছাম্মৎ রীতা আক্তার নামে এক গৃহবধূকে হাসপাতালে নিয়ে আসলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। তিনি বলেন, রীতা গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছে বলে জানিয়েছে তার পরিবার। তবে কী কারণে আত্মহত্যা করেছে তা জানাতে পারেননি তিনি।

রীতার শশুর।

এদিকে, ছেলে রিপনের সঙ্গে পারিবারিক কলহের জেরে রীক্তা আত্মহত্যা করেছে বলে ধারণা তার শ্বশুরের।  তিনি বলেন, এ ঘটনার কারণ আমার পুত্রবধূ ও আমার ছেলের মধ্যে মনোমালিন্যের কারণ হতে পারে।  যদি এ ঘটনায় আমার ছেলে দোষি হয় এবং জড়িত থাকে তাহলে তাকে ফাঁসি দেয়া হোক।

এদিকে রীতার পরিবারে অভিযোগের প্রেক্ষিতে পুলিশ রীতার স্বামী ও শাশুড়িকে আটক করে থানায় নিয়ে গেছে। তবে পুলিশ বলছে, পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে  সহকারী কমিশনার (পাঁচলাইশ জোন) মো. সোহেল রানা বলেন, ঘটনার প্রকৃত রহস্য উদঘাটনে সসময় লাগবে।আমরা আটক দুজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করছি পাশাপাশি পোস্টমর্টেম রিপোর্ট পাওয়া ছাড়া ক্লিয়ার কিছু বলা যাচ্ছে না।

কোন মন্তব্য নেই