হাটহাজারীতে শিশু ধর্ষণ, ধর্ষক আটক

0
.

চট্টগ্রামে হাটহাজারীতে পেয়ারা খাওয়ানোর প্রলোভন দেখিয়ে ১২ বছর বয়সী এক শিশু কন্যাকে ধর্ষণ করেছে মো. জাবেদ (২২) নামে এক লম্পট। চাঞ্চল্যকর এ ঘটনাটি গত সোমবার (১৬জুলাই) সকাল ১০টা দিকে ঘটেছে।

মো. জাবেদ হাটহাজারী পৌর এলাকার পশ্চিম দেওয়ান নগর মিয়াজির বাড়ির মৃত খলিলুর রহমানের পুত্র।  পুলিশ ধর্ষক জাবেদকে গ্রেফতারের পর আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করেছে।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, শিশুটি উপজেলার একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৩য় শ্রেণির ছাত্রী।  শারিরিক অসুস্থতার কারণে ঘটনার দিন সে স্কুলে যায়নি। চাষাবাদের কারণে পিতার কৃষিক্ষেতে যাওয়া ও অন্যান্য ভাই-বোন স্কুল এবং কলেজে যাওয়ার কারণে ওই সময় ঘরে শুধুমাত্র মা ছাড়া কেউ ছিল না।

এসময় ঘরের পেছনে একা পেয়ে মেয়েটিকে ফুসলিয়ে ও পেয়ারা খাওয়ানোর প্রলোভন দেখিয়ে জাবেদ তাদের নতুন ভবন সংলগ্ন বাগানে নিয়ে যায়।

প্রথমে মেয়েটিকে সে গাছ থেকে দুটি পাঁকা পেয়ারা পেড়ে দেয়। পরে ঘর সংলগ্ন গাছ থেকে আরো পেয়ারা দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে মেয়েটিকে ঘরের ছাদে নিয়ে যায়।  এবং ছাদের দরজা বন্ধ করে মেয়েটিকে তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে ধর্ষণ করে।

মেয়েটির আর্তচিৎকার শুনে স্থানীয়রা এগিয়ে আসার আগেই জাবেদ পালিয়ে যায়। বিষয়টি মেয়েটির পরিবার স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের জানানো পরে কোন বিহীত না হওয়ায় মেয়ের বাবা গত শুক্রবার থানায় জাবেদের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলার অভিযোগ দায়ের করেন। মামলা রুজুর পরপরই হাটহাজারী থানার এসআই আনিস আল মাহমুদ জাবেদকে আটক করে কারাগারে প্রেরণ করে।

হাটহাজারীর থানার ওসি মো. বেলাল উদ্দিন জাহাঙ্গীর বলেন, মেয়েটিকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে প্রেরণ করা হয়েছে। ডাক্তারি পরীক্ষাও সম্পন্ন হয়েছে। আটককৃত জাবেদকে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।

কোন মন্তব্য নেই

একটি মন্তব্য দিন