রাঙামাটি নানিয়ারচর উপ-নির্বাচনে  শান্তিপূর্ণভাবে ভোটগ্রহণ চলছে

0

 

.

রাঙামাটির নানিয়ারচর উপজেলা পরিষদের উপ-নির্বাচনে শান্তিপূর্ণভাবে ভোটগ্রহণ চলছে। সকাল ৮টা থেকে ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে। উপজেলার ১৪টি ভোটকেন্দ্রে দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে নিজেদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করছে উপজেলাবাসী।

আজ বুধবার (২৫জুলাই) সকাল থেকে উপজেলার হাজাছড়ি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, ঘিলাছড়ি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, বগাছড়ি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, নানিয়ারচর পূর্নবাসন সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়সহ বেশ কয়েকটি কেদ্রে গিয়ে দেখা গেছে কোনো প্রকার অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়াই শান্তিপূর্ন পরিবেশে বিপুল সংখ্যক পাহাড়ি-বাঙ্গালী নারী-পুরুষ দীর্ঘ সারিতে দাড়িয়ে ভোটাধিকার প্রয়োগ করছে।

প্রতিটি ভোট কেন্দ্রে একজন নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেটের উপস্থিতিতে চলছে ভোটগ্রহণ। অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে নেওয়া হয়েছে ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা। উপজেলাজুড়ে বিচরণ করছে সেনাবাহিনী, র‌্যাব-বিজিবি, পুলিশ ও আনসার-ভিডিপির প্রায় ৯শতাধিক সদস্য।
রাঙামাটির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জাহাঙ্গীর আলম জানিয়েছেন, ‘ভোটকেন্দ্রে পর্যাপ্ত পরিমাণে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য মোতায়েন করা আছে। কেন্দ্র থেকে দূরে সেনাবাহিনী ও বিজিবির সদস্যরা স্টাইকিং ফোর্স হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

ভোটাররা নিরাপদে ভোট দিয়ে বাড়িতে ফিরছেন। ভোটাধিকার প্রয়োগ শেষে ভোটারা জানালেন, ‘শান্তিপূর্ণ ভাবেই ভোট দিয়েছি। কোনও প্রকার বাধা পেতে হয়নি।

রিটার্নিং অফিসার আব্দুল লতিফ শেখ জানান, নানিয়ারচরের ৪টি ইউনিয়নের ১৪টি কেন্দ্রের ৮৩টি ভোট কক্ষে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হচ্ছে। নির্বাচনে ১৪জন প্রিজাইডিং অফিসারের নেতৃত্বে ৮৩জন সহকারি প্রিজাইডিং অফিসার এবং ১৬৬ জন পোলিং অফিসার ভোট গ্রহণ প্রক্রিয়ায় দায়িত্ব পালন করছেন। প্রায় লক্ষাধিক জনসংখ্যার বসবাস নির্ভর নানিয়াচর উপজেলায় এবারের নির্বাচনে নারী ভোটার ১৫ হাজার ৮৪৬ এবং পুরষ ভোটারের সংখ্যা ১৭ হাজার ৮ জন মিলে সর্বমোট ভোটার হলো ৩২ হাজার ৮শ ৫৪ জন। সার্বিক নিরাপত্তার কাজে পুলিশ, বিজিবি, সেনাবাহিনী, র‌্যাব ও আনসার সদস্যরা কাজ করছে।
চলতি বছরের গত ৩রা মে নানিয়ারচর উপজেলা পরিষদের নির্বাচিত চেয়ারম্যান এ্যাডভোকেট শক্তিমান চাকমা সন্ত্রাসীদের গুলিতে নির্মমভাবে নিহত হওয়ার পর উক্ত আসনটিতে ২৫শে জুলাই উপনির্বাচন ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন। দুইদিনের ব্যবধানে ৬টি হত্যাকান্ডসহ ব্যাপকহারে সন্ত্রাসী কর্মকান্ড সংগঠিত হওয়া নানিয়ারচর উপজেলাকে ইতিমধ্যেই অত্যাধিক ঝুঁিকপূর্ন উপজেলা হিসেবে চিহ্নিত করে এই উপজেলায় এবারের নির্বাচন সুষ্ঠ পরিবেশে অনুষ্ঠানে উপজেলাজুড়ে মাঠে নামানো হয়েছে অন্তত ৯শতাধিক নিরাপত্তাকর্মী ও শতাধিক কর্মকর্তাকে।

আজকের উপ-নির্বাচনে জেএসএস (এমএন লারমা) সমর্থিত প্রার্থী প্রগতি চাকমা আনারস প্রতীকে এবং ইউপিডিএফ সমর্থিত প্রনতি চাকমা কাপ-পিরিচ প্রতীক নিয়ে নির্বাচনে লড়ছেন। এই নির্বাচনে একমাত্র নারী প্রার্থী কল্পনা চাকমা লড়ছেন দোয়াত কলম প্রতিক নিয়ে।

প্রসঙ্গত, গত ৩রা মে নিজ কার্যালয়ে যাওয়ার পথে দুর্বৃত্তের গুলিতে নিহত হন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শক্তিমান চাকমা। তার মৃত্যুর পর শূন্য আসনে আজ উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

 

 

কোন মন্তব্য নেই

একটি মন্তব্য দিন