গায়েবি মামলার জলোচ্ছ্বাসে সারাদেশ প্লাবিত

0
.

পুলিশের দেওয়া গায়েবি মামলার জলোচ্ছ্বাসে সারাদেশ প্লাবিত বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

তিনি আজ শনিবার (১৫ সেপ্টেম্বর) সকালে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ মন্তব্য করেন।

রিজভী বলেন, সরকারি জুলুমের তীব্র কষাঘাতে সারাদেশ বিরান ভূমিতে পরিণত হয়েছে। গোটা দেশকে ভুতুড়ে বাড়িতে পরিণত করার উদ্যোগ চলছে। একদিকে লাগামহীন গ্রেফতারের উন্মাদনা, অন্যদিকে গায়েবি মামলার জলোচ্ছ্বাসে সারাদেশ আজ প্লাবিত।

বিরোধী দলের নেতাকর্মীরা গ্রাম থেকে শহরে এবং শহর থেকে বন্দরে ছুটে বেড়াচ্ছেন উল্লেখ করে তিনি বলেন, বিএনপি নেতাকর্মীরা ঘরছাড়া; গ্রাম ও শহর নেতাকর্মীশূন্য। তৃণমূলের ওয়ার্ড থেকে জাতীয় পর্যায় পর্যন্ত বিভিন্ন কমিটিতে সভাপতি থেকে সর্বশেষ সদস্য পর্যন্ত সবার বিরুদ্ধে অসংখ্য মিথ্যা মামলা দেওয়া হচ্ছে।

বিএনপিসহ বিরোধী দলগুলোর সাধারণ সমর্থকরাও মামলা-হামলার ছোবল থেকে রেহাই পাচ্ছে না অভিযোগ করে রিজভী বলেন, ‘মূলত ভোটারশূন্য করার জন্যই সরকার বিএনপির ওপর আগাম আক্রমণ শুরু করেছে। বিএনপির নেতাকর্মীরা যেন আন্দোলন বা নির্বাচনের কাজে অংশগ্রহণ করতে না পারেন, সেজন্যই এই আগাম অভিযান।’

বিএনপির সিনিয়র এই নেতা আরও বলেন, আগামী নির্বাচনে এজেন্ট দেওয়া দূরে থাক, বিএনপির কোনো প্রার্থীও যেন খুঁজে পাওয়া না যায়, সেজন্য সরকার আগাম আক্রমণ চালিয়ে যাচ্ছে। অবৈধ সরকার এখন উন্মাদের দশায় পৌঁছেছে। এরা নিজেদের আত্মবোধহীন উন্মাদে পর্যবসিত করেছে। মানুষের ক্ষোভের ধাক্কায় পালিয়ে যাওয়ার পথ খুঁজতেই সরকার বেসামাল হয়ে ভুয়া মামলা ও গ্রেফতারকে কাজে লাগিয়ে টিকে থাকতে চাচ্ছে।

মেডিকেল বোর্ডে খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত চিকিৎসকদের অন্তর্ভুক্ত করার দাবি জানিয়ে তিনি বলেন, ‘সরকার ইচ্ছাকৃতভাবেই বেগম জিয়াকে গুরুতর শারীরিক অসুস্থতার দিকে ঠেলে দিচ্ছে। এরই অংশ হিসেবে সরকারের অনুগ্রহভাজন ডাক্তারদের দিয়ে চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হচ্ছে। সরকারের এই সিদ্ধান্ত বিপজ্জনক। যদি হিংসাশ্রয়ী হয়ে দেশনেত্রীর ক্ষতি করা হয়, তাহলে সরকারের পরিণাম হবে ভয়াবহ।’

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির চেয়ারপাসনের উপদেষ্টা আবুল খায়ের ভূঁইয়া, কেন্দ্রীয় নেতা শাহ মোহম্মদ আবু জাফর, আবদুস সালাম আজাদ, মুনির হোসেন, হেলেন জেরিন খান, আমিনুল ইসলামসহ অন্যরা।

কোন মন্তব্য নেই

একটি মন্তব্য দিন