রাউজান ফজলে করিমই আওয়ামী লীগের এমপি প্রার্থী-মন্ত্রী মোশাররফ

0
.

বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য,গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশারফ হোসেন বলেছেন রাউজানের নৌকা প্রার্থী এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী। তাকে রেকড সংখ্যক ভোটে নির্বাচিত করে চতুর্থ বারের মত প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনাকে রাউজানের আসন উপহার দিতে হবে। শনিবার সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত রাউজান উপজেলার বিভিন্ন স্পটে পথসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এই আহ্বান জানান সমবেত জনসাধারণের উদ্দেশ্যে।
সকালে তিনি রাউজানে প্রবেশ করে প্রথম সমাবেশ করেন গহিরা চৌমুহনীতে।

এই সভায় সভাপতিত্ব করেন উপজেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি কামাল উদ্দিন আহমদ। প্যানেল মেয়র বশির উদ্দিন খানের সঞ্চালনায় এই অনুষ্ঠানে তিনি বলেন জননেত্রী শেখ হাসিনা তার স্বপ্নে সোনার বাংলা গড়ার জন্য যে ধরণের সোনার মানুষ চাই সেই ধরণের সোনার মানুষ হিসাবে নিজকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন রাউজানের সাংসদ এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী। রাউজানে তার বিকল্প হিসাবে অন্য কোনো ব্যক্তিকে ভাবাই যায় না।

তিনি জোর দিয়ে বলেন রাউজান আসনে নৌকার প্রার্থী এবিএম ফজলে করিমই চুড়ান্ত। এখন সকলকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে ভোটের বিশাল ব্যবধানের রেকর্ড সৃষ্টি করা। এসময় মন্ত্রীর সাথে থাকা নেতৃবৃন্দের মধ্যে প্রধান বক্তার বক্তব্য রাখেন রাউজানের সাংসদ এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী।

তিনি বলেন, রাউজানবাসীর কাছ থেকে আমার চাওয়ার কিছু নেই। আমি নিতে আসিনি, দিতে এসেছি। আমি রাউজানে বেচে থাকতে চাই আমার কর্মের মাধ্যমে। আমি চাই রাউজানে লক্ষ করিম সৃষ্টি হোক। তিনি রাউজানের উন্নয়ন ও ভবিষৎ পরিকল্পনা নিয়ে একটি রূপরেখা প্রকাশ করেন।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন-চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এম এ সালাম, জেলা আওয়ামীলীগ নেতা এটিএম পেয়ারুল ইসলাম, ইউনুচ গণি চৌধুরী, জসিম উদ্দিন শাহ, চট্টগ্রাম জেলা পরিষদের সদস্য এম এ ওহাব, রাউজান উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব এহেছানুল হায়দার চৌধুরী বাবুল, জেলা মহিলা আ,লীগের সভানেত্রী দিলু আরা ইউছুপ।

এই সমাবেশ শেষে মন্ত্রী দলিয় নেতৃবৃন্দকে সাথে নিয়ে নির্বাচনী প্রচারণায় যান এক নম্বর হলদিয়া ইউনিয়নের হযরত ইয়াছিন শাহ কলেজ মাঠে। সভাপতিত্ব করেন স্থানীয় চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা শফিকুল ইসলাম। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন মাহবুল আলম।

এরপর সামাবেশে যোগদেন রাউজান পৌর এলাকার জলিল নগর এলাকায়। এখানে কয়েক হাজার নারী পুরুষের সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি কামাল উদ্দিন।

উপজেলা যুবলীগ সভাপতি ও রাউজান পৌরসভার দ্বিতীয় প্যানেল মেয়র জমির উদ্দিন পারভেজের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত এ সমাবেশে শেষে নেতৃবৃন্দ মধ্যহ্নভোজে যোগদেন। পরে পথসভা করেন কদলপুর ও পাহাড়তলী, নোয়াপাড়া ও উরকিরচর ইউনিয়নে। এসব সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন স্থানীয় চেয়ারম্যান আলহাজ্ব দিদারুল আলম সৈয়দ আবদুল জব্বার সোহেল, রোকন উদ্দিন ও আবদুল করিম।

সমাবেশে অন্যান্যদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন আলহাজ্ব নুর মোহাম্মদ, ফৌজিয়া খানম মিনা, চেয়ারম্যান আবদুর রহমান চৌধুরী লালু, এম সরোয়াদ্দী সিকদার, প্রিয়োতোষ চৌধুরী, বিএম জসিম উদ্দিন হিরু,লায়ন সাহাবুদ্দিন আরিফ, এম আব্বাস উদ্দিন, ভুপেশ বড়–য়া, কাউন্সিলর জানে আলম জনি, আলমগীর আলী, আজাদ হোসেন, সওকত হাসান, অ্যডভোকেট সমীর দাশ গুপ্ত, স্বপন দাশ গুপ্ত, অ্যডভোকেট দিপক দত্ত, সাবেক চেয়ারম্যান আবদুল মোমেন, জিয়াউল হক সুমন, নজরুল ইসলাম চৌধুরী, নুরুল ইসলাম শাহজাহান, জাফর আহমদ, মঞ্জুর হোসেন, দুলাল বড়ুয়া, এমএস আজম খান, বাবুল মিয়া মেম্বার, সাইফুল ইসলাম চৌধুরী রানা প্রমুখ।

কোন মন্তব্য নেই

একটি মন্তব্য দিন