সন্দ্বীপে অস্ত্র তৈরীর কারখানার সন্ধান, নারীসহ গ্রেফতার ২

1
.

চট্টগ্রামের সন্দ্বীপ উপজেলার একটি বাড়ীতে অভিযান চালিয়ে বিক্রির জন্য তৈরীকৃত ২০টি আগ্নেয়াস্ত্র ও অস্ত্র তৈরীর বিপুল সরঞ্জাম উদ্ধার করেছে পুলিশ। এসময় বাড়ীর মালিকের স্ত্রীসহ দুইজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

গ্রেফতারকৃতরা হলো, প্রিয়া বেগম (২২) ও অস্ত্র তৈরীর কারিগর সাইফুল ইসলাম (২৮)।

উদ্ধার করা অস্ত্রের মধ্যে রয়েছে-৬টি দোনলা বন্দুক, ১১টি একনলা বন্দুক, ৩টি পাইপ গান, ৫টি বন্দুকের কার্তুজ, ৫টি বন্দুকের কার্তুজ, ১০টি পাইপ গান তৈরীর বিভিন্ন সাইজের পাইপ, ১০টি ট্টিগ্রার, ১৮টি স্প্রি, ৫০টি বিভিন্ন সাইজের পাত, ৮টি ফায়ারিং পিন রড, ২৫০টি ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র যন্ত্রাংস, ৫টি বিভিন্ন সাইজের কাঠের টুকরা, ১টি হেসকু করাত, ২টি লোহার রেত, ২টি কাঠের বাট সহ হাতুর, ২টি গ্লাস, ২টি স্কু ড্রাইভার, ১টি স্কেল, ১টি বাইশ মেশিন, ১টি ড্রিল মেশিন, ১টি ছোট হাওয়ার মেশিন, ১টি গ্রেন্ডার মেশিন, ১০টি গ্রেন্ডার মেশিনের ব্লেড, ৫০টি লোহা জ্বালাই করা রড, ১টি টাইগার কোম্পানীর জেনারেটর, ২টি কালো স্টেচটেপ, আরো বিভিন্ন অস্ত্র তৈরী সরঞ্জামাদি। 

আজ বৃহস্পতিবার (২৫ অক্টোবর) দুপুরে উপজেলার রহমতপুর ইউনিয়নের কালা মইন্যার বাড়িতে এই অভিযান চালানো হয়।

.

বিষয়টি নিশ্চিত করে সন্দ্বীপ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ শাহজাহান জানান, নিজ বাড়ীতে অস্ত্র তৈরির কারখানা তৈরী করেছে মনির হোসেন নামে এক ব্যক্তি। গোপন সুত্রে খবর পেয়ে আমরা অভিযান চালিয়ে মনির হোসেন এর স্ত্রী প্রিয়া বেগম ও কারখানার মূল কারিগর সাইফুলকে গ্রেফতার করেছি।
কারখানা থেকে উদ্ধার করা হয়েছে ২৫টি আগ্নেয়াস্ত্র।