পরিবহন ধর্মঘট চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা

1
.

পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী সারাদেশে ৪৮ ঘণ্টার কর্মবিরতি পালনের কর্মসূচি অব্যাহত রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন।

রবিবার (২৮ অক্টোবর) সন্ধ্যায় ফেডারেশন নেতাদের সঙ্গে বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক উছমান আলী বৈঠক শেষে সড়ক বলেন, ‘আমরা ৪৮ ঘণ্টার কর্মসূচি দিয়েছি। এটি আমাদের আগের কর্মসূচি। সুতরাং এটি অব্যাহত থাকবে।’

৪৮ ঘণ্টার কর্মসূচি শেষে নতুন কোনো কর্মসূচি দেওয়া হবে কি না জানতে চাইলে এই শ্রমিক নেতা বলেন, ‘সেটি নির্ভর করছে সরকারের ওপর। সরকার যদি আমাদের দাবি পূরণের ব্যাপারে আন্তরিক হন তাহলে নতুন কর্মসূচি দেওয়া বা না দেওয়ার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত হবে।’

‘এই কর্মসূচি শেষ হোক, তারপর নেতাদের সঙ্গে আলোচনা করে নতুন সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে’, বলেন উছমান গনি।

সড়ক পরিবহন আইনের কয়েকটি ধারা সংশোধনসহ ৮ দফা দাবিতে রোববার সকাল ছয়টা থেকে সারাদেশে ৪৮ ঘণ্টার কর্মবিরতি শুরু করেছে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন। এই কর্মবিরতির কারণে রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশের সড়ক যোগাযোগ অচল হয়ে পড়েছে।

রাজধানী ঢাকায় কর্মব্যস্ত মানুষেরা গন্তব্যে যেতে দিনব্যাপী দুর্ভোগে পড়েন। কোথাও কোথাও শ্রমিকদের হাতে হেনস্তার শিকার হয়েছেন যাত্রী ও বেসরকারি গাড়ির চালকরা। কর্মবিরতির দিন রাস্তায় গাড়ি বের করায় চালকদের শরীরে পোড়াল মবিল ঢেলে দেওয়া হয়েছে। লাঞ্ছিত হয়েছেন স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা।

পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে শ্রমিকদের হাতে নাজেহাল হন সংবাদকর্মীরাও।

কর্মবিরতির প্রথম দিনে রাজধানী ঢাকা থেকে দূরপাল্লার কোনো বাস ছেড়ে যায়নি। এমনকি দূরপাল্লার কোনো বাস ঢাকায় ঢোকেনি।

প্রথম মন্তব্য

একটি মন্তব্য দিন